সংবাদ শিরোনাম:
দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকার সেরা অফিসার ইনচার্জ ফারুক হোসেন ‘ভোট জালিয়াতি’ তদন্তের নির্দেশ চট্টগ্রামে গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ধর্ষকদের বাঁচাতে কাউন্সিলরপ্রার্থী বেলালের দৌড়ঝাঁপ নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে দুই নবজাতকের লাশ নিয়ে হাইকোর্টে বাবা কনস্টেবলকে মারধর, শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী কারাগারে অবক্ষয় থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করতে চলচ্চিত্রের ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে- তথ্যমন্ত্রী পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ ৯ দিনে করোনা জয়ী তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
করোনায় আমার ক্যাম্পাস

করোনায় আমার ক্যাম্পাস

ঢাকা কলেজ
ঢাকা কলেজ

স্টাফ রিপোর্টার : সুনসান নীরবতা জনমানবহীন পুরো ক্যাম্পাস আর নির্জন মাঠে নিজেকে আসলে বড্ড অপরিচিত মনে হচ্ছে। এটা কি আমার ক্যাম্পাস? যেখানে হাজারো প্রাণের উচ্ছ্বাস আর আবেগ মাখানো স্বপ্ন গুলো থমকে আছে! এটাই কি আমার সেই পরিবার যেখানে সকল হাসি কান্না আর ভালোবাসা বিনিময় হয়? এটাই কি হাজারো মেধাবীর স্বপ্নের ক্যাম্পাস?

ঢাকা কলেজ অনেকের কাছে যেমন স্বপ্নের জায়গা, আমার কাছেও তা–ই। ২০১৩ সালে প্রথম পা রেখেছিলাম ঢাকা কলেজে, এর আগে কখনো আসা হয়নি,শুধু নাম শোনা হয়েছিল। তারপর ২০১৫ তে ভর্তির মাধ্যমে নতুন জীবনে প্রবেশ। যে জীবনে মানুষ কাটিয়ে দেয় তার সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ সময়গুলো। আর তাই ক্যাম্পাস আমার অন্য এক জীবন,অন্য এক পরিবার, অন্য এক অনুভূতি।মাঝেমধ্যে ভাবতাম! খুব ভাবতাম। পড়াশোনার শেষে যখন এই ক্যাম্পাসটা ছাড়ব, যখন পাশে এই পাগলাটে বন্ধুগুলো থাকবে না, তখন বুকের ভেতরটায় কত হাহাকার খেলে যাবে! কতটা শূন্য লাগবে আমার দুনিয়া আর একা লাগবে নিজেকে! একসময় আর ভাবতে পারি না। বুকের বাঁ পাশটায় ব্যথা করে। কেমন চিনচিনে একটা ব্যথা! সেই ব্যাথাতুর ভাবনা গুলোকে করোনা কেমন যেন সত্যি করে দিল। কতদিন প্রাণের ক্যাম্পাস থেকে দূরে! সেই ক্লাস রুম, গ্যালারি, অডিটোরিয়াম, কলেজ মাঠ, পুকুরপাড়, ক্যাফেটেরিয়া, টেনিসগ্রাউন্ড, সাউথ হল, নর্থ হল, সাউদায়ন হল, সাংবাদিক সমিতির অফিস!

সবই আছে আগের মত, শুধু মিষ্টি মধুর কোলাহল আর প্রাণের মানুষগুলো নেই। এখন আর ছুটি মনে হয়না, মনে হয় কারাবাস! এই কারাবাসে যদিও আমার পরিবারের সাথেই সময় কাটছে। অধিকাংশ সময় অনলাইন, ফেসবুক, ইউটিউব এবং বাকী সময়টা ঘুম। এতে করেই চরম ভাবে বিষিয়ে উঠছি।

ধৈর্য তার সীমা অতিক্রম করে মাঝে মাঝে সিডরের মত প্লাবিত করে দিয়ে যায় মনের ভেতরটায়।যখন এই প্রাণের ক্যাম্পাসটাতে থাকব না; প্রতিটা মিনিট, প্রতিটা সেকেন্ড মিস করব। কিন্তু সবকিছু থেকেও না থাকার কষ্টের অনূভুতি আরো নিদারুণ। বন্ধুরা, খুব মিস করছি তোদের, তোদের আড্ডা আর বেসুরো গানের জমজমাট আসরটাকে আর সবচেয়ে বেশি প্রাণের ক্যাম্পাসটাকে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840