সংবাদ শিরোনাম:
বিবস্ত্র করে নির্যাতন: চার বিশিষ্টজনের প্রতিক্রিয়া মিন্নি সর্বশেষ সংবাদ টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন
ছাত্রলীগ নেতা হত্যার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী এখন আওয়ামীলীগ এর রাজশাহী মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক

ছাত্রলীগ নেতা হত্যার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী এখন আওয়ামীলীগ এর রাজশাহী মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক

বেল্টু
বেল্টু

১৯৯৯ সালের ২৬ মার্চ। রাজশাহীতে ঘটে ভয়াবহ হত্যাকান্ড। প্রত্যেক্ষ জনসমুক্ষে ছাত্রলীগের একজন বলিষ্ঠ নেতাকে প্রকাশ্যে খুন করা হয়। আসামীদের বিচার হয়। সাজাও হয়। তারা এখন জামিনে মুক্ত। তারা এখন ক্ষমতার উচ্চাসনে আসীন। যে দলের নেতাকে মারলেন সেই দলই এখন তাদের পরিচয়। তাদের পরিচয়েই রাজশাহীতে চলছে তাদের তৎকালীন শত্রুপক্ষের সেই দল। ঘটনাটি গোলাম হত্যা মামলা ও ট্রাক ড্রাইভার থেকে মিলিওনার বনে যাওয়া বেল্টুর।

রাজশাহী মহানগর কমিটির ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী গোলাম মুর্শিদ ওরফে গোলামকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। গোলাম হত্যার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি বেন্টু রাজশাহী আ. লীগের বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক।

রাজশাহীতে হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদের পাহাড় গড়েছেন বিল্টু। জানা যায় নিজস্ব অস্ত্রধারী বাহিনী রয়েছে তার।

১৯৯৪-৯৫ সালে রাজশাহীর কোর্ট এলাকায় বামপন্থী ছাত্রসংগঠন ছাত্রমৈত্রীর দাপুটে প্রভাবকে গুড়িয়ে দিয়ে ছাত্রলীগ তথা আওয়ামী লীগের আধিপত্য কায়েম করেছিল। সেই সময়ে রাজশাহীর ছাত্রলীগের নের্তৃত্বের অগ্রভাগে ছিলেন গোলাম।

ছাত্রমৈত্রীর এতোটাই দাপট ছিলে যে তাদের অনুমতি ছাড়া রাজশাহীতে কোন সভা- সমাবেশ হতে পারতো না। সেখানে তীব্র বাধার মুখে গোলাম কোর্ট ঢালান মোড়ে আওয়ামী লীগের বিশাল সমাবেশ করেন। যা বিল্টু বাহিনীর জন্য অপমানকর মনে হয়। বিল্টুরাই ছিলেন ছাত্রমৈত্রীর প্রবল প্রতাপের নেতা।

তৎকালীন বিরোধী দল নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী, মাদার অফ হিউম্যানিটি শেখ হাসিনা রাজশাহী সফরে গেলে ওই গোলামের বাড়িতেও যান। রাজশাহী সার্কিট হাউসে গোলামকে ডেকে আদর করে তাঁর মাথায় হাত বুলিয়ে দেন যা যে কোন নেতাকর্মীর ভাগ্যে জোটে না।

গোলামের উথ্থান সহ্য করতে না পেরে, ছাত্রমৈত্রীর রাজশাহী মহানগর কমিটির সাবেক সভাপতি রবিউল আলম বাবুসহ একটি দল নির্মম ভাবে গোলামকে কুপিয়ে হত্যা করে যে হত্যাকান্ডে সরাসরি অংশ নেন বেল্টু।

১৪ জনকে আসামি করে নগরীর রাজপাড়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। ২০০৫ সালের ৮ মে বাবু ও বেন্টুসহ ১১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত  কিন্তু মাত্র আট মাস কারাভোগ করেন সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা এরপর উচ্চ আদালতে থেকে জামিনে মুক্ত হোন।

গোলামের পরিবার আর্থিক ভাবে অসমর্থ হওয়ায় মামলাটি চালিয়ে যেতে পারে নি। তারা আওয়ামী লীগ সরকারের উপর রাগে, ক্ষোভে, দু:খে রাজনীতিতেও নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েন।

হড়গ্রাম এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা ট্রাক চালক আজিজুল আলম বেন্টু। কিছুদিন মাছও বিক্রি করেছেন। বাড়িতে গরুর খামার করে দুধ বিক্রি করেও সংসার চালাতেন একসময়। বর্তমানে রাজশাহীতে তাঁর হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদ। জমি জায়গার এখন আর অভাব নেই তার।

বালুমহাল, সরকারি জমি ও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর বাসস্থান দখল, ভয়ভীতি দেখিয়ে নামমাত্র মূল্যে সাধারণ মানুষের জমি কেনার অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে বেন্টুর বিরুদ্ধে। কিছুদিন আগে জেলা প্রশাসনের সাথে বালুমহল নিয়েও বিরোধ হয়। তিনি তাবী করেন ২ কোটি ২ লাখ টাকায় তিনি বালুমহল ইজারা নিয়েছেন যা জেরা প্রশাসকের মাধ্যমেই সম্ভব হয়েছে।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আজিজুল আলম বেন্টু খুবই ধুরন্ধর ব্যক্তি। হতাকাণ্ডের কিছুদিন আগে বেল্টু আওয়ামী লীগে যোগ দেন। এখন রাজশাহী নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তাঁর বড় ভাই উক্ত হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি রবিউল আলম বাবু রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের সভাপতি হিসেবে শক্ত অবস্থানে আছেন।

নিহত গোলামের ভাই এস এম গোলাম জিলানী রাজু বলেন, ‘আমার ভাইয়ের হত্যাকারীদের সাজার রায় কার্যকর দেখতে চাই। জানি না আদৌতেও সেটা কখনো সম্ভব হবে কি না। আমাদের টাকা নেই। তাদের সাথে টাকার খেলায় নামতে পারবো না। আমার ভাই এই সরকারের রাজনীতি করে জীবন দিয়েছে অথচ খুনিরা আজ এই সরকারের দলে ঢুকে সুবিধা ভোগ করছে। সহ্য হয় না ”

বেল্টু দাবী করেন ঐ মামলায় তার জড়ানো, গ্রেফতার হওয়া এবং সাজাভোগ এসবের পিছনে রয়েছে অনেক বড় গল্প। সে কারো উপর জোড়-জুলুম করেনি।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840