সংবাদ শিরোনাম:
বিবস্ত্র করে নির্যাতন: চার বিশিষ্টজনের প্রতিক্রিয়া মিন্নি সর্বশেষ সংবাদ টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন
টাঙ্গাইলে বর্তমান চেয়ারম্যান এমদাদুল হক সরকার ও তার ক্যাডার বাহিনীর বিরুদ্ধে মামলা: পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ভূক্তভোগী পরিবার

টাঙ্গাইলে বর্তমান চেয়ারম্যান এমদাদুল হক সরকার ও তার ক্যাডার বাহিনীর বিরুদ্ধে মামলা: পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ভূক্তভোগী পরিবার

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলের রসুলপুরের এমদাদ চেয়ারম্যানের নির্যাতন
টাঙ্গাইলের ঘাটাইলের রসুলপুরের এমদাদ চেয়ারম্যানের নির্যাতন

ঘাটাইল এর ১০ নং রসুলপুর ইউনিয়নের চেয়ায়ম্যান এমদাদুল হক সরকার ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর সাঙ্গপাঙ্গদের বিরুদ্ধে মামলা হলেও তারা স্বদর্পে এলাকায় তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এখনও মামলার কোন ধরণের অগ্রগতি পর্যবেক্ষিত হয়ন বরংচ পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ভূক্তভোগীর পরিবার।

টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলার ১০ নং রসুলপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো: এমদাদুল হক সরকার (৫২), পিতা – মৃত মোসলেম উদ্দিন সরকার কে ১ নং বিবাদী করে মো: ছানোয়ার হোসেন (২৫), পিতা- মৃত দারোগ আলী বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ঘাটাইল আমলী আদfলত, টাঙ্গাইলে মামলা দায়ের করেছেন।

বাদী ও বিবাদী উভয়েই একই গ্রাম ঘোনার দেউলীতে বাস করেন। বাদী মো: ছানোয়ার হোসেন বর্তমান ইউনিয়ন পরিষদ এর সদস্য হালিম মেম্বারের ভাই। হালিম মেম্বার ও তার ছেলে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মেম্বার ও তার ছেলের হাত চেয়ারম্যান এর সন্ত্রাসী বাহিনী ভেঙ্গে দেয়। হালিম মেম্বারের স্ত্রী কে এলোপাথারি কোপানো হয়। তার মাথায় ২৬ টি সেলাই দিতে হয়েছে।

চাঞ্চল্য কর মামলাটির মোকাদ্দমা নং ৪৫০/২০১৯ (ঘাটাইল)।

মামলাটিতে ১ নাম্বার আসামি বর্তমান চেয়ারম্যান এমদাদুল হক সরকার (৫২), পিতা: মৃত মোসলেম উদ্দিন সরকার ছাড়াও আর-ও সাত জনকে আসামি করা হয়েছে। অন্য আসামীরা হলেন ২। মো: সাইফুল ইসলাম (৩০), পিতা: মৃত নুরুল ইসলাম, ৩। মো: মোতালেব (৩৭), পিতা: মো: জাফর আলী, ৪। মো: আ: রহিম (২৮), পিতা: মো: ওমর আলী, ৫। মো: জুয়েল রানা (২১), পিতা: মো: আবু বক্কর সিদ্দিক, ৬। মো: কুদ্দুস মিয়া (৪৫), পিতা: হায়দার আলী, ৭। মো: লুফর (৩০), পিতা: মো: হাসমত আলী ওরফে হুসু, ৮। মো: হামেদ আলী (৫০), পিতা: মৃত চান্দে মিয়া। সকল আসামীগণই ঘোনার দেউলি গ্রামে বসবাস করেন।

মামলায় দুটি ঘটনার ‍উল্লেখ করা হয়।
১ম ঘটনাটি ঘটে টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল থানার ঘোনার দেউলি মসজিদের সামনে রকারী পাকা রাস্তার উপর।

গত ১৬-০৯-২০১৯ তারিখে সময় আনুমানিক সকাল ১০ টার সময় শাহাদৎ হোসেন হালিম মেম্বার এর পুত্র আজমান ও স্ত্রী আছমা বেগম সহ বাদীর ভাগিনা বৌ শারমিনকে ধারালো অস্ত্র ধারা মারপিট করে রক্তাক্ত করে। এতে করে ঘাটাইল থানায় ঐ দিনই তারা মামলা দায়ের করে।

উক্ত মামলা দায়ের করার ফলে আসামী গণ আর-ও বেপরোয়া হয়ে উঠে এবং উক্ত মামলার ১ম স্বাক্ষী কে রাস্তায় আটকিয়ে অস্ত্র প্রদর্শন সহ বিভিন্ন ভয় ভীতি দেখিয়ে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। উক্ত টাকা ১ নং আসামীর নিকট দিতে বলে না হলে পরিবারের লোকজন সহ খুন ও ঘুম করে ফেলার হুমকী দেয়।

উক্ত ঘটনার ফলে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের কাছে বিচার চাওয়া হলে তারা শাসিয়ে দেয়। আসামীরা আর কোন ক্ষতি করবে না বলে মিমাংসা হয়।

২য় ঘটনাটি ঘটেছে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সামনেই চা স্টলে। হালিম মেম্বার তার বাড়ির কাজে হাত দিবেন। রড-সিমেন্ট ইত্যাদি কিনতে হবে। তাই ৩ নং স্বাক্ষীর নিকট গচ্ছিত অর্থ আনতে যান। চা স্টলে বসে তারা চা পান করছিলেন। আসামীরা তাকে আগে থেকেই অনুসরন করেন।

আসামীদের গাড়ী নম্বর পাজারো ঢাকা মেট্রো-ঘ-১১-৮৮-১৮ বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। যা চড়ে আর-ও কিছু আসামীরা উপস্থিত হয়।

টাকা গ্রহনের সময় অতর্কিতভাবে আসামীগণ হামলা করে ১নং ও ৩নং স্বাক্ষী গণের কাছ থেকে দেড় লাখ টাকা জোর করে কেড়ে নেয় এবং বাকি পঞ্চাশ হাজার টাকার দাবী জানায়। উক্ত স্বাক্ষীগণের উপর বর্বরোচিত হামলা হয় পেচারআটা বাজারে সকলের সম্মুক্ষে।

সন্ত্রাসীদের তান্ডবে কেউ কিছু বলতে পারে না ওই এলাকার সাধারণ মানুষ। এমতাবস্থায় ২ নং স্বাক্ষী মারামারি থামাতে চেষ্টা করলে। আসামীদের দেয়া শাবলের আঘাতে সে মারাত্মকভাবে জখম হয়। সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

মামলাটি আমলে নিয়ে ঘাটাইল থানা ওসিকে অনুসন্ধান করে তদন্ত প্রতিবেদন জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট কোর্ট টাঙ্গাইলে জমা দিতে বলেন।

এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। আসামীদের তান্ডবে স্বাক্ষি ও ভূক্তভোগীরা অনিরাপদ ও পালিয়ে জীবন বাঁচাচ্ছেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840