সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
টিপু রহমান আইসিটি মামলা করলেন সাহিত্য সংগঠক ইশতিয়াকের বিরুদ্ধে

টিপু রহমান আইসিটি মামলা করলেন সাহিত্য সংগঠক ইশতিয়াকের বিরুদ্ধে

সাহিত্য ব্যবসা
সাহিত্য সংগঠকদের মামলাবাজি

স্টাফ রিপোর্টারঃ কবি ইশতিয়াক আহমেদ ছিলেন কবি এবং কবিতার ভুবণ নামক একটি অনলাইন সাহিত্য সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। অবশ্য বাংলাদেশে সাহিত্য সংগঠন বলতেই প্রতিষ্ঠাতাই সভাপতি হোন। বলা যায় অনলাইন জগতে এক অলিখিত চুক্তি হচ্ছে একজন দু-চার লাইন লিখুক বা নাই লিখুক একটি সাহিত্য গ্রুপ ক্রিয়েট করলেই তিনি সভাপতি হতে পারেন। যে কেউ চাইলেই অনলাইন সাহিত্য গ্রুপের সভাপতি হতে পারেন।

কবি টিপু রহমান দেশ সেরা কবি লেখকদের মধ্যে অন্যতম একজন। তার প্রতিষ্ঠিত সাহিত্য গ্রুপ হচ্ছে জাতীয় কবি পরিষদ (জাকপ)। সংখ্যার বিচারে অনলাইন জগতে বাংলা সাহিত্যের সবচেয়ে বড় গ্রুপ এটি।

কবি টিপু রহমানের উদ্যোগে অনলাইন গ্রুপস এসোসিয়েশন প্রতিষ্ঠা লাভ করে। যেখানে কবি ইশতিয়াক আহমেদ ছিলেন অত্যন্ত বিশ্বস্ত ও স্নেহাস্পদ।

কিছু আগে সুবীর নন্দির একটি বিথ্যাত গানের স্থায়ী টুকু নিয়ে জিয়াউদ্দিন জেইন নামক একজন কবির কবিতা প্রকাশিত হয়। পরবর্তী সময়ে কবি টিপু রহমান সরাসরি তাকে কবিতা চোর হিসেবে সম্বোধন করেন। ঐ কবি হৃদ পল্লী নামক একটি গ্রুপের কথা উল্লেখ করেন তারাই ওই স্থায়ী টুকু দিয়েছিল বলে দাবী জানালেও গ্রুপের অন্য সদস্যরা তা অ-স্বীকার করেন।

একপর্যায়ে টিপু রহমান টাকার বিনিময়ে ক্রেস্টের ব্যবস্থা করে দেন এমন আলোচনা ও রেকর্ড উঠে আসে। টিপু রহমান ছোট ছোট সংগঠনের সংগঠকদের উদ্দেশ্য করে হিজড়া বলে গালি দিলে রেগে যায় ইশতিয়াক আহমেদ। সব কথাই হয় অনলাইন গ্রপস এসোসিয়েশনের চ্যাট প্যানেলে।

ইশতিয়াক আহমেদ রেগে গিয়ে কবি টিপু রহমানের স্ত্রীকে নিয়ে জঘন্য ভাষায় মন্তব্য করেন। টিপু রহমানের স্ত্রী একজন সম্মানীত গুণি ব্যক্তি। তাকে অসম্মান করায় তিনি রীতিমত কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। কথাগুলো অত্যন্ত বাজে হওয়ায় সকল মহিলা কবি সংগঠক সহ সকলেই ক্ষিপ্ত হলে, ক্রমশ গ্রুপের বাহিরেও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। কবি টিপু রহমান ইশতিয়াককে ক্ষমা চাইতে বললে ইশতিয়াক আরো কু-রুচিপূর্ণ ভাষায় সকলকে উদ্দেশ্য করে গালিগালাজ করতে থাকেন।

ক্ষিপ্ত হোন টিপু রহমান, এক পর্যায়ে তিনি বলেন, ইশতিয়াককে মেরেই ফেলবো। তার ক্ষমতা প্রদর্শনের বিষয়ে বারবার তিনি হুমকি দিতে থাকেন। কবি পরিচয় ছাড়াও তার রাজনৈতিক পরিচয়ের কথা বলেন এমনকি পেশি শক্তির বিষয়ে বারবার তিনি ভয়েস মেসেজ এর মাধ্যমে হুমকি দিতে থাকেন।

স্ত্রীর অসম্মানে রাগান্বিত হয়ে বাজে ভাবে মন্তব্য করলেও টিপু রহমান সতর্কভাবে আইন হাতে তুলে নেননি। ইশতিয়াকের বিরুদ্ধে অবশেষে আইসিটি আইনে মামলা ঠুকে দেন তিনি।

আরো বেশ কয়েকজন ইতিমধ্যে ইশতিয়াকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানীর অভিযোগ করেছেন। জাতীয় কবিতা পরিষদের মহিলা মেম্বার ছাড়াও অভিযোগ করেছে ভারতীয় তিন জন লেখিকা। এই বিষয়ে অনলাইস গ্রুপস এসোসিয়েশনে অভিহীত করেছেন টিপু রহমান।

টিপু রহমান এর মাধ্যমেই জানা যায় মামলাটি বর্তমানে সাইবার অপরাধ দমন ট্রাইবুনালের মাধ্যমে চলছে। সে এমনটা বলেছেন যারা জঙ্গি দমন নিয়ে কাজ করেন তাদের হাতেই বর্তমানে মামলাটি রয়েছে। এখন মামলাটি তার এখতিয়ারের মধ্যে নেই। ইশতিয়াক যেখানেই পালিয়ে থাকুক প্রশাসন-ই তাকে খুঁজে বের করবে এবং যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নিবে।


জাকপ এর মেম্বারদের অনলাইন গ্রুপ এসোসিয়েশনে প্রভাব বিস্তার করতে দেখা যায়। একমাত্র তারাই গ্রুপটির এডমিন ও পরিচালক। বাকিরা অনেকটাই দর্শকের ন্যায়। বলতে গেলে তারা যা বলবে তাই সঠিক, অন্যদেরকে অত্যান্ত হেয় প্রতিপন্ন করা হয় সবসময়। অনেকেই বিভিন্ন গ্রুপ থেকে এখানে যোগদান করলেও বর্তমানে অনেকটা নিষ্ক্রিয়।

অনলাইন সাহিত্য গ্রুপ গুলো বানিজ্যিক উদ্দেশ্যে নিয়েই প্রতিষ্ঠিত বলে মন্তব্য করেন একজন তরুণ কবি। তিনি বলেন একটি গ্রুপে আপনি একটিভ থাকবেন। নিয়মিত লাইক কমেন্টস করবেন। আপনি গ্রুপের সেরা লেখক হয়ে যাবেন। আপনার ক্রেস্ট আর পদকের অভাব হবে না। আসলে এই অনলাইন সাহিত্য গ্রুপ গুলোকে পুঁজি করে ব্যবসা করছে অসংখ্য ভন্ড সাহিত্যিকরা।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840