সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
ত্রি-দেশীয় সিরিজের ফাইনাল আজ

ত্রি-দেশীয় সিরিজের ফাইনাল আজ

বাংলাদেশ আফগানিস্তান
বাংলাদেশ আফগানিস্তান

বাংলাদেশের আয়োজনে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে- আফগানিস্তান এর মধ্যে অনুষ্ঠিতব্য ত্রি-দেশীয় টি-টুয়েন্টি সিরিজের আজ ফাইনাল খেলা। নীয়ম রক্ষার ম্যাচে আফগান দলপতি রশিদ গান ইনজুরিতে পড়লেও করেছেন মূল্যবান কয়েকটি ওভার।


তার ওভারেই দুইটি ওইকেটের পতন ঘটে আবার এক ওভারে সাকিবের ঝড়ো ব্যাটিং-এ ১৮ রান খরচ হয়। যে ওভারে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত হয়ে যায়। ম্যাচ জয়ী রানটি আসে মোসাদ্দেকের ব্যাট থেকে এটা যেন রোজকার নীয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন।


সাকিব নিজেও যেন নিজেকে মেলে ধরেন চিরচেনা পুরোনো রূপে। বোলিং হাতে মাত্র ২৪ রান খরচায় তুলে নেন ১ ওইকেট অপরদিকে একাই ঝড়ের ব্যাগে শক্ত হাতে চার ছক্কার ফুলঝুড়িতে তুলে নেন অপরাজিত ৭০ রানের অনবদ্য একটি ইনিংস। যার বদৌলতে তার হাতে উঠে ম্যাচ সেরার পুরুস্কার।


রশিদ খানের আজকের ম্যাচে খেলা, না খেলা নিয়ে ধোয়াশা রয়েছে। অপরদিকে টাইগার বোলিং দলপতি সাইফ উদ্দিন বলেছেন শতভাগ নয় ষাট-সত্তর ভাগ দিয়েও আফগান বধ সম্ভব।


ত্রি-দেশীয় সিরিজ শুরুর আগে একমাত্র টেষ্টে বাংলাদেশ আফগানিস্তানের কাছে লজ্জ্বাজনক ভাবে হেরে যায়। সিরিজের শুরুর ম্যাচেও হেরে বোর্ড ও খেলোয়াররা পড়েন তুমুল বিদ্রুপের মুখে।


বোর্ড যেন সবার সমালোচনায় খেই হারিয়ে ফেলেন। কাকে আনবেন? কাকে বাদ দিবেন? কেন বাদ দিবেন? কেন আনবেন? সব কিছুই হচ্ছে সমালোচনার যোগ্য। যা করেন তাতেই পরে যান আবারো বিপাকে।


দল হেরে গেলেও খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে সাব্বির টেনে আনতে চেষ্টা করেন পর পর দু-ম্যাচে অথচ অযৌক্তিকভাবে তাকেই পরের ম্যাচে বাদ দেয়া হয়। আবার এক ম্যাচ পরে দলে আবার সাব্বিরের আগমন। তবে বারবার সুযোগ পেয়েও সাব্বির আর যেতে পারছেন না তার সেই চিরচেনা পুরোনো আগ্রাসী রুপে। ব্যাটিং তান্ডব চোখে পড়ছে না মুশফিক কিংবা লিটনের।


এক ম্যাচে জয়ের নায়ক আফিফ হোসেন, বাকি ম্যাচে যেন খেই হারিয়ে ফিরছেন নিজেকে খুঁজে পাওয়ার দিশায়। যদিও শেষ ম্যাচে সে এক ওভারে দুটি ওইকেট নিয়ে দলকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনে।


ঘুরে ফিরে সেই সিনিয়ররাই ম্যাচ বাচাচ্ছেন। আগের ম্যাচে মাহমুদউল্লাহ্ পরের ম্যাচে সাকিব। চিরচেনা হাত ধরেই আসছে কাঙ্খিত জয়। অথচ দুটি ম্যাচ আগে সবাই সিনিয়র ক্রিকেটারদের কড়া সমালোচনায় ছিলেন পঞ্চমুখ।


রিটায়ার্ম্যান্টে যেন পাঠাতে চেয়েছিলেন সব সিনিয়রদের অখচ তাদের হাত দিয়েই সিরিজে টিকে থাকা এবং প্রথম রাউন্ডের ম্যাচ গুলো শেষে শক্ত অবস্থানে বাংলাদেশ টিম। আজ প্রমান করার মিশন কে সত্যিকারের সেরা।


আফগানিস্তানের কাছে টানা চার বছর জয় ছিল অধরা এমনকি টানা পাঁচ ম্যাচ পর গত ম্যাচে জয়ে ফিরেছে বাংলাদেশে। টানা চারটি টি-টুয়েন্টিতে হেরেছে বাংলাদেশ।


অপরদিকে আফগানিস্তান টানা বার ম্যাচ জয়ের বিশ্ব রেকর্ড করলে সেখানে লাগাম টেনে ধরেন হেমিল্টন মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচে।


দাম্ভিক রশিদ খান আজকে কি দাম্ভিকতা নিয়ে ফিরে যেতে পারবে নাকি বাংলাদেশ হাসবে শেষ হাসি। কি আছে কার ভাগ্যে? আজ দুপুরে বৃষ্টি হওয়ায় আউট ফিল্ড ভেজা রয়েছে। হাল্কা আদ্র বাতাসে আজ পাওয়ার ব্যাটিং করতে হবে। বাংলাদেশের ওপেনিং ভালো কিছু দিতে পারছে না বহুদিন। আজ দেখা যাক কি হয়। কথায় আছে শেষ ভাল যার সব ভাল তার।


বাংলাদেশের কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো বলেছেন “আমরা খারাপ সময় পার করতেছি। আমাদের দল তাদের স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারতেছে না। আমরা খুব শীঘ্রই আমাদের চেনা রূপে ফিরে আসবো। আজকের ম্যাচ দিয়েই দেখাতে চাই আমাদের ছেলেরা শেষ হয়ে যায়নি।”


বাংলাদেশের দাপুটে পার্ফমেন্স চোখে পরেনি কোন ম্যাচেই তবে আফগানিস্থান শুরু থেকেই রয়েছে ফুরফুরে মেজাজে। তাদের শক্ত বোলিং আর আগ্রাসি ব্যাটিং তান্ডব যে কোন দলের জন্য হুঙ্কার হয়ে দাঁড়িয়েছে।


তারা সকল ক্ষেত্রে সাম্প্রতিক সময়ে দারুন উন্নতি করেছে। মুজিব-রশিদ-নবী তিনটি দাপুটে খেলোয়ারের কাছে বাংলাদেশ যেন নাস্তানাবুদ হচ্ছে বারবার। হারের বৃত্ত ভাঙ্গলেও সিরিজ জয়ের বন্দরে আজ কি পৌছুবে বাংলাদেশ? সেটা দেখার অপেক্ষায় পুরো আঠার কোটি বাঙ্গালি।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840