সংবাদ শিরোনাম:
দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকার সেরা অফিসার ইনচার্জ ফারুক হোসেন ‘ভোট জালিয়াতি’ তদন্তের নির্দেশ চট্টগ্রামে গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ধর্ষকদের বাঁচাতে কাউন্সিলরপ্রার্থী বেলালের দৌড়ঝাঁপ নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে দুই নবজাতকের লাশ নিয়ে হাইকোর্টে বাবা কনস্টেবলকে মারধর, শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী কারাগারে অবক্ষয় থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করতে চলচ্চিত্রের ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে- তথ্যমন্ত্রী পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ ৯ দিনে করোনা জয়ী তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
ধর্মই যাদের অধর্ম-মিজান হাওলাদার

ধর্মই যাদের অধর্ম-মিজান হাওলাদার

মিজান হাওলাদার
doinik71

কিছুদিন আগে আমার খুবই পরিচিত একজন উজবুক টাইপের লেবাসধারী ধর্মবেশ্যা(ধর্ম ব্যবহার করে উর্পাজন করে)। কথার ফাঁকে আমাকে বললো -ফ্ল্যাটটি ছেড়ে দিবো-নতুন ফ্ল্যাটে উঠবো।

আমি বল্লাম কেন?আরে ভাই আর বলো না –সারা বাড়িতে মুসলিম ফ্যামিলি মাত্র দুটি- বাকি সব বিধর্মী।সকাল বিকেল এসব ইহুদী-নাসারাদের মুখোমুখি হতে হয়।বিশ্বাস করো -আমার দিন খুব খারাপ যায়। তারপর বাচ্চাকাচ্চা আছে -ওরা ওদের অপসংস্কৃতি শিখে যাবে তো!

কথাটা শুনে আমি অবাক হলাম -আর বল্লাম 
রাস্তায় বের হলে কুকুর দ্যাখো তুমি বিড়াল দেখতে দেখতে হাঁটতে পারো। আর মানুষ দেখলে (বিধর্মী) দেখলে তোমার সারাদিন খারাপ যায়? ধর্ম আগে না মানুষ? মানুষ এনেছে ধর্ম নাকি- ধর্ম এনেছে মানুষ? মানুষের প্রয়োজনে ধর্ম?? নাকি-ধর্মের প্রয়োজনে মানুষ? বিধর্মীদের মিষ্টি দধি খেতে পারো,বিধর্মী শিক্ষকের কাছে ছেলেকে পড়তে পারো।অসুস্থ হলে -বিধর্মী ডাক্তার দেখাতে পারো।আরো নানান প্রয়োজনে বিধর্মীদের ব্যবহার করতে পারো। আর সেই বিধর্মীদের সাথে একই বাড়ীতে থাকতে পারো না?? মুখোমুখি হলে দিন খারাপ যায় তোমার? এসব কুসংস্কার বাদ দাও -এসব গোঁড়ামি বাদ দাও।

লোকটি আমার উপরে বিগড়ে গেলেন -বল্লেন -হাওলাদার নামাজ নাই রোজা নাই তুমি তো দেখি নাস্তিক হয়ে যাচ্ছো! ধূর! তোমার সাথে কথা বললে ঈমান থাকবে না।তোমারে কবিতায় পাইছে ভালো কইরা!এইসব বা★ ছাল মার্কা কবিরা -এমনেই নাস্তিক – তুমিও তাদের একজন। তবে তোমার জন্য দোয়া করি আল্লাহ তোমাকে সঠিক পথে নিয়ে আসুক।

– আমি আবার বেঠিক কী বললাম?

–ঐ যে তুমি বিধর্মীদের সাপোর্ট করে কথা বলো। 
মুসলিম হয়ে অন্য ধর্মের লোকের পক্ষে থাকা যাবে না-ভাই। 
–আমি বল্লাম-জাতীয় নির্বাচনে যাকে ভোট দিছেন –
সে কিন্তু হিন্দু মানে বির্ধমী।নির্বাচনে চরমোনাইর হুজুরের ইসলামি আন্দোলনের হাতপাখায় কিন্তু ভোট দেননি।আপনি দিয়েছেন হিন্দু একজন প্রার্থীকে।

–আমার সাথে কথায় না পেরে -যাও তোমার সাথে এসব নিয়ে আর কোনো কথাই বলতে চাই না৷
তুমি তো নাস্তিক -আর তেমার মতো নাস্তিকের সাথে কথা বললে -ঈমান থাকবে না।এসব লোক যুক্তিতর্কে না পেড়ে যা মুখে আসে বকবক করে-,কেটে পরে। আর ক্ষেত্রবিশেষ মানুষের কাছে আপনাকে আমাকে আরো হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য নাস্তিকের তকমা দিবে।
এদের আসলেই কোন ধর্মীয় শিক্ষা নেই। এরা বেশির ভাগই কথিত জ্বীন-ভূত তাড়ানো ফকির কিংবা তিন রাস্তার মোড়ে এলার্জি চুলকানির মলম বিক্রেতার মতো মাইক লাগিয়ে দান বাক্সের টাকা উঠানোর আজগুবি গপ্পকর্মীর থেকে -লতা পাতার ঝিরিঝিরি মিলন, সরপুঁটি রুই মাছের বিরহ, কাঁচামরিচ পিছন দিকে দিলে জ্বলে -সামনে দিলে জ্বলবে না।আলুর চপ বেগুনী-মডু বানানোর রেসিপি লিখে -বিখ্যাত ধর্মীয় চিন্তাবিধ হয়েছেন। গাছের মাথায় বৃষ্টি পড়ে নায় -মেঘ ছাড়া বৃষ্টি হয়। ঘোড়ায় শুয়ে-বসে ঘুমানো জায়েজ নেই, হাতি মরলে দাম আছে বাঁচলে দাম আছে বলা জায়েজ নাই, 
পুকুরে ডুবিয়ে গোসল করার জায়েজ নাই, গভীর নলকূপের পানিতে শুয়ে-বসে গোসল করার জায়েজ আছে। এমন হযবরল-মার্কা গল্প শুনে শুনে আপনাকে আমাকে নিয়মিত উপদেশ দিবে।এদের সাথে যেকোন টপিকে কথা বলবেন- সব বিষয়ে ধর্মীনুভূতি খুঁজবে। 
সে কথায় কথায় আপনাকে/ আমাকে ভুলভাল বুঝাবে কিন্তু আপনি ভুল ধরতে পারবেন না। তাহলে ওনি আপনাকে পারলে জিহ্বা চেপে ধরার উপক্রম তৈরি করে ফেলবে।বেশি কিছু বললে এদের আবার ঈমান থাকে না-!বোঝা যাচ্ছে এদের কাছে ঈমান প্লাস্টিকের ছিদ্র বোতলের পানি। বোতলে পানি দিলেই 
যেকোন সময় পড়ে যাবে।

আমার প্রশ্ন,কতিপয় মানুষ কথায় কথায় ঈমান ঈমান থাকবে না বলে স্লোগান দেয়। আসলে এদের মূল উদ্দেশ্য কী?ঈমান কী কাচের পুতুল -যে কিছু উজবুকের ঠুকনো আঘাতে ভেঙে যাবে?আমার বুঝে আসে না!

আমি ধর্মীয় নিয়মকানুন যতটুকু জানি তা সাধ্য মতো মেনে চলি- কিন্তু এসব গোঁড়ামি কুসংস্কার আমি পছন্দ করি না। কোনদিন করবো না -তাতে কেউ নাস্তিক কিংবা আরো কিছু ভাবলে আমার কোন আপত্তি নেই। আমি কিংবা আপনি কী বিশ্বাসী তা লোক দেখানোর কিছু নেই তা আপনার আমার মন জানে!

আমার কাছে ধর্মের আগে মানুষ তারপর ধর্ম।মানুষই যদি না থাকে ধর্ম দিয়ে কী হবে?ধর্মের দোহাই দিয়ে যে লোক এমন মনোভাব ব্যক্ত করে তাকে আমি মানুষ বলি না।

কিছু মানুষের ধর্মীয় জ্ঞান খুব কম।তারা এতোটাই গোঁড়ামি আর কুসংস্কার মাঝে এখনো বসবাস করছে। -তারাই কিছু বিষয়কে ধর্মের দোহাই দিয়ে দিনদিন ধর্মকে হাস্যকর করে ফেলার পায়তারা করছে। 
এসব উজবুক আর অশিক্ষিত কথিত ধর্মজীবি মানুষদের আগে মানুষ হওয়ার আমন্ত্রণ জানাই৷

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840