সংবাদ শিরোনাম:
দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকার সেরা অফিসার ইনচার্জ ফারুক হোসেন ‘ভোট জালিয়াতি’ তদন্তের নির্দেশ চট্টগ্রামে গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ধর্ষকদের বাঁচাতে কাউন্সিলরপ্রার্থী বেলালের দৌড়ঝাঁপ নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে দুই নবজাতকের লাশ নিয়ে হাইকোর্টে বাবা কনস্টেবলকে মারধর, শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী কারাগারে অবক্ষয় থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করতে চলচ্চিত্রের ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে- তথ্যমন্ত্রী পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ ৯ দিনে করোনা জয়ী তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
নারীদের গণপরিবহনে নিরাপত্তায় পুলিশের নির্দেশনা

নারীদের গণপরিবহনে নিরাপত্তায় পুলিশের নির্দেশনা

নারীদের গণপরিবহনে নিরাপত্তায় পুলিশের নির্দেশনা
নারীদের গণপরিবহনে নিরাপত্তায় পুলিশের নির্দেশনা

বিভিন্ন কাজে বা প্রয়োজনে গণপরিবহনে নারীদের একা ভ্রমণ করতে হয়। একা ভ্রমণ করতে গিয়ে অনেক সময় তাদের সম্মুখীন হতে হয় কিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনার। একটু অসতর্কতা ডেকে নিয়ে আসতে পারে অনেক বড় বিপদ। তাই গাড়িতে একা হলে কী করবেন-এ বিষয়ে বাংলাদেশ পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ কিছু পরামর্শ প্রদান করেছে।

আপনার নিরাপত্তার স্বার্থে নিম্নে প্রদত্ত পরামর্শসমূহ অনুসরণ করার চেষ্টা করুন-

– কোন গাড়িতে যাত্রী সংখ্যা ৫-৭ জনের কম হলে সেই গাড়িতে ভ্রমণের বিষয়ে সতর্ক থাকুন অথবা অধিক যাত্রী সম্বলিত গাড়ির জন্য অপেক্ষা করুন।

– আপনি যতো ক্লান্তই থাকুন না কেন একা একা ভ্রমণের সময় কিছুতেই গাড়িতে ঘুমাবেন না।

– গাড়িতে উঠার সময় গাড়ি যাত্রীতে পূর্ণ থাকলেও বিভিন্ন স্টপেজে যাত্রী নামতে নামতে যদি যাত্রী সংখ্যা ১০ এর কাছাকাছি পৌঁছে যায় তাহলে গাড়ি থেকে নামার আগ পর্যন্ত অত্যন্ত সতর্ক থাকুন।

– এমন পরিস্থিতিতে গাড়ির এমন কোন সুবিধাজনক সিটে বসুন যেখান থেকে আপনি গাড়ির হেলপার, কন্ট্রাক্টর ও ড্রাইভারসহ অন্যান্য যাত্রীর উপর সজাগ দৃষ্টি রাখতে পারবেন।

– প্রয়োজনে এ সময় আপনার পরিবারের কাউকে অথবা নির্ভরযোগ্য কাউকে মোবাইল ফোনে কল করে একটু উচ্চ শব্দে (গাড়ির ভিতরে থাকা অন্যান্য যাত্রীদের শুনিয়ে শুনিয়ে) আপনার গাড়ির নাম, বর্তমান অবস্থান এবং গন্তব্যস্থল সম্পর্কে জানিয়ে রাখুন। এমন কি, সে মুহূর্তে গাড়িতে কতজন যাত্রী অবস্থান করছেন তার সংখ্যা এবং গাড়ির স্টাফসহ যাত্রীদের সংক্ষিপ্ত বিবরণও জানিয়ে রাখতে পারেন। এতে করে গাড়ির ভিতরে থাকা কারো মনে কোন অসৎ চিন্তা/পরিকল্পনা থাকলে সে/তারা ভয় পাবে।

– কোন স্টপেজে যাত্রী সংখ্যা আরো কমে ৫ এর নিচে চলে আসার উপক্রম হলে সেটি আপনার গন্তব্যস্থল না হলেও অন্যান্য যাত্রীদের সাথে সেই স্টপেজেই নেমে পড়ুন এবং আপনার পরিবারের কাউকে মোবাইলে কল করে সেখানে এসে আপনাকে নিয়ে যেতে বলুন।

– এ সময় আপনাকে নিতে আসা ব্যক্তিটি ঐ স্থানে এসে না পৌঁছানো পর্যন্ত আপনার সাথে থাকার জন্য যাত্রীদের মধ্য হতে আপনার দৃষ্টিতে নির্ভরযোগ্য কাউকে অনুরোধ করতে পারেন।

– কেউ যদি আপনাকে সাহায্য করতে না চায় কিংবা যদি অনিরাপদ বোধ করেন তাহলে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশের সাহায্য নিন।

– এছাড়াও, গাড়িতে যাত্রীর সংখ্যা ৫ এর কাছাকাছি থাকা অবস্থায় যদি গাড়ির ভিতরে থাকা কারো মধ্যে অস্বাভাবিক কোন চঞ্চলতা লক্ষ্য করেন এবং প্রয়োজন ছাড়াই গাড়ির দরজা এবং জানালা বন্ধ করে দিতে দেখেন, তাহলে দেরি না করে সাথে সাথে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশের সাহায্য নিন।

এই বিষয় সমূহ উল্লেখ করে পুলিশ লিফলেট বিতরণ করছে। জনসচেতনা সৃষ্টির মাধ্যমে পুলিশের প্রতি মানুষের আস্থা তৈরিতে পুলিশ ব্যাপকভিত্তিক চেষ্টা করে যাচ্ছে। সমসাময়িক বিভিন্ন ঘটনা থেকে দেখা যায় পুলিশ তার রূটিন ওয়ার্কের বাইরে জনগনকে বিভিন্ন ধরণের সহযোগিতা প্রদান করে আসছে।

বিগত কয়েকবছরের বিভিন্ন ঘটনাসমূহের কারনে বাংলাদেশ পুলিশের উপর থেকে জনগণের আস্থা ক্রমশই যেন উঠে যাচ্ছিল। পুলিশ কর্মকর্তাগণ সরকারের বিভিন্ন নীতি বাস্তবায়ন করতে গিয়েই এমন দূরত্ব সৃষ্টি হচ্ছিল বলে জানান ঢাকার কারওয়ান বাজারের একজন ফল ব্যবসায়ী। তিনি বলেন “আমরা-ও বুঝি পুলিশ সরকারি চাকরি করে। সরকার যা বলবে তারা তাই করতে বাধ্য। তবে কিছু কিছু কাজ খুবই প্রশংসার দাবীদার।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840