সংবাদ শিরোনাম:
দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকার সেরা অফিসার ইনচার্জ ফারুক হোসেন ‘ভোট জালিয়াতি’ তদন্তের নির্দেশ চট্টগ্রামে গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ধর্ষকদের বাঁচাতে কাউন্সিলরপ্রার্থী বেলালের দৌড়ঝাঁপ নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে দুই নবজাতকের লাশ নিয়ে হাইকোর্টে বাবা কনস্টেবলকে মারধর, শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী কারাগারে অবক্ষয় থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করতে চলচ্চিত্রের ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে- তথ্যমন্ত্রী পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ ৯ দিনে করোনা জয়ী তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে

নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে

ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে
ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে

নিজস্ব প্রতিনিধি: মাহবুব কে পরশু রাতে বিজয়নগর থানার, পাহাড়পুর ইউনিয়নের,ভিটিদাউদপুর গ্রাম থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে এবং গতকাল তাকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাঁকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

এ ব্যপারে জানতে চাইলে বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতিকুর রহমান বলেন, আদালত থেকে গ্রেফতারী পরোয়ানা পাওয়ার পরেই আমরা তাকে গ্রেফতার করে ও আদালতে প্রেরণ করিলে আদালত তাঁকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার অনেকের কাছে খোঁজ নিয়ে আরো জানা যায় মাহবুব বিবাহিত তার বাচ্চাও আছে এবং মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণসহ অনেক অভিযোগ তার বিরুদ্ধে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল বলেন আমরা বিষয়টি শুনেছি, কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে কথা বলে তাকে বহিষ্কার করা হবে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে নারী নির্যাতনের অভিযোগে ভাবির করা মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম মাহবুব হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার ভোরে বিজয়নগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের ভিটিদাউদপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে মাহবুবকে গ্রেফতার করা হয়।

গত ৪ আগস্ট মাহবুরের বড় ভাই জাকির হোসেনের স্ত্রী রেহানা আক্তার তার স্বামী, দেবর ও শাশুড়িসহ ছয়জনকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন। আসামিরা হলেন, মাহবুব হোসেন, জাকির হোসেন, মোস্তফা হোসেন, নূরানী বেগম, শমলা খাতুন ও আইরিন আক্তার।

বিজয়নগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আদালত থেকে পারিবারিক মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করার প্রেক্ষিতে মাহবুবকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মামলার বাদী রেহেনা আক্তার বলেন, “আমার স্বামী জাকির হোসেন তার নিজের পছন্দে আমাকে বিয়ে করেন। কিন্তু তার পরিবারের লোকজন আমাকে মেনে নিতে পারেনি। আমার স্বামী একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি হওয়ায় বিয়ের পর থেকেই আমাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার জন্য আমার ওপর নির্যাতন শুরু হয়। সবকিছু জেনেও আমার স্বামী নির্যাতনের প্রতিবাদ করেনি।”

তিনি আরো বলেন, “সম্প্রতি আমাকে রাখার জন্য বাড়িতে আলাদা একটি ঘর কেরে দেন আমার স্বামী। এরপর থেকে আমার ওপর নির্যাতন আরও বাড়তে থাকে। আমি ঘরে ঢুকতে পারিনি, আমাকে সবাই মিলে বের করে দিয়েছে।”

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840