সংবাদ শিরোনাম:
বিবস্ত্র করে নির্যাতন: চার বিশিষ্টজনের প্রতিক্রিয়া মিন্নি সর্বশেষ সংবাদ টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন
বাংলাদেশকে করোনা প্রতিরোধ সরঞ্জাম দেবেন আলিবাবা

বাংলাদেশকে করোনা প্রতিরোধ সরঞ্জাম দেবেন আলিবাবা

আলিবাবা ও জ্যাক মা
আলিবাবা ও জ্যাক মা

বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক, টেস্ট কিট আর নিরাপত্তা পোশাক অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা। আজ শনিবার নিজের ভেরিফাইড টুইটার একাউন্টে তিনি এই ঘোষণা দিয়েছেন। এতে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি।

জ্যাক মা লিখেছেন, তারা ১৮ লাখ মাস্ক, দুই লাখ ১০ হাজার টেস্ট কিট, ৩৬ হাজার নিরাপত্তামূলক পোশাক দেবেন। সেই সঙ্গে ভেন্টিলেটর এবং থার্মোমিটারও দেওয়া হবে।

বাংলাদেশের পাশাপাশি এসব সরঞ্জাম পাবে আফগানিস্তান, কম্বোডিয়া, লাওস, মালদ্বীপ, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। চিনে করোনার কারনে ব্যাপক অর্থনৈতিক ক্ষয় ক্ষতি হলেও তারা সামাল দিয়ে উঠেছেন। এখন সারাবিশ্বের পাশে দাঁড়াচ্ছেন তারা।

অনলাইন ভিত্তিক খুচরা পণ্য বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলোর অন্যতম শীর্ষ প্রতিষ্ঠান চীন ভিত্তিক আলিবাবা। ‘আলিবাবা’কে চীনের ই-বে বলে গণ্য করা হয়। সমস্ত কিছুই বিক্রি হয় তাদের ইন্টারনেট সাইটে। এর বাজার মূল্য এখন চল্লিশ হাজার কোটি ডলার।

জ্যাক মা লিখেছেন, সরবরাহ কার্যক্রম হয়তো দ্রুত করা সম্ভব হবে না। কিন্তু তারা শেষ পর্যন্ত সেটি সম্পন্ন করবেন।

আলিবাবা একটি বহুজাতিক ই-কমার্স, পাইকারি, ইন্টারনেট, প্রযুক্তি বিক্রয়কারী কোম্পানি যেটি ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি ক্রেতা-ক্রেতা, ব্যবসায়ী-ক্রেতা,ব্যবসায়ী-ব্যবসায়ী পন্য ক্রয় বিক্রয় ওয়েব পোর্টাল এর মাধ্যমে সেবা প্রদান করে থাকে।

এটি বিশ্বের শীর্ষ ১০টি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি। জানুয়ারি ২০১৮, আলিবাবা দ্বিতীয় এশিয়ান কোম্পানি হিসেবে ৫০০ বিলিয়ন মার্কেট মূল্য অতিক্রম করে। আলিবাবা এখন বিশ্বের নবম মূল্যবান ব্যান্ড। দুইশত দেশে সেবা প্রদানকারী আলিবাবা এখন বিশ্বের বড় খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান।

প্রতিষ্ঠানটির নামকরন “আলিফ লায়লা” নামক আরব্য সাহিত্যের আলীবাবা চরিত্র থেকে করা হয় কেননা এটি বিশ্বব্যাপি সমাদৃত।

২০১৪ সালের ৫ই সেপ্টেম্বর আমেরিকান সিকিউরিটি এন্ড এক্সচেঞ্জে দলিলপত্রাদি পেশ করে যাতে প্রতি শেয়ারের প্রারম্ভিক দাম রাখা হয় ৬০-৬৬ ডলার। আর শেষ দাম কত রাখা হবে তা নির্ণয় করা হবে আন্তর্জাতিক রোড শো করার মাধ্যমে যাতে করে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বাড়ানো যায়।

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ সালে আলি বাবার আইপিও গিয়ে দাড়ায় ৬৮ ডলারে যা কোম্পানীর $২১.৮ ডলার বৃদ্ধি করা। আলি বাবা আমেরিকান আইপিও’র ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

জ্যাক মা’র এমন সিদ্ধান্তে অনুপ্রানিত হয়েছেন বিশ্বের অসংখ্য ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কর্নধার। সকলেই বলছেন এরকম ভাবে সকলেরই এগিয়ে আসা উচিত।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840