সংবাদ শিরোনাম:
দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকার সেরা অফিসার ইনচার্জ ফারুক হোসেন ‘ভোট জালিয়াতি’ তদন্তের নির্দেশ চট্টগ্রামে গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ধর্ষকদের বাঁচাতে কাউন্সিলরপ্রার্থী বেলালের দৌড়ঝাঁপ নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে দুই নবজাতকের লাশ নিয়ে হাইকোর্টে বাবা কনস্টেবলকে মারধর, শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী কারাগারে অবক্ষয় থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করতে চলচ্চিত্রের ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে- তথ্যমন্ত্রী পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ ৯ দিনে করোনা জয়ী তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

ভূমিকম্পের গুজব

গুজবের দেশ বাংলাদেশ
গুজবের দেশ বাংলাদেশ

গভীর রাতে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় একযোগে আজান।

কক্সবাজারে গভীর রাতে সর্বত্র মসজিদে মসজিদে আজান শোনা গেছে। সেই সঙ্গে শোনা গেছে, হিন্দু পল্লীগুলোতে মন্দিরে মন্দিরে শংখ ও কাঁসার ধ্বনি এবং ঘরে ঘরে উলুধ্বনিও। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টা থেকে কক্সবাজার ও পার্শ্ববর্তী সীমান্ত উপজেলা নাইক্ষ্যংছড়িতে আজান দেওয়া শুরু হয়।

মধ্যরাত সোয়া ১২টায় এ প্রতিবেদন লেখাকালীন সময় পর্যন্ত আজানের ধ্বনি বিভিন্ন এলাকা থেকে শোনা যাচ্ছিল। এলাকায় রাতের মধ্যে ভূমিকম্প আঘাত হানতে পারে এমন গুজবের ওপর ভর করে এসব করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

তবে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন এ বিষয়ে গভীর রাতে তাঁর নিজের ফেসবুক আইডিতে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে জনগণকে অনুরোধ করেছেন-‘গুজবে কান দেবেন না। নিজ ঘরে থাকুন, করোনা প্রতিরোধে সহায়তা করুন।’

জানা গেছে, বিভিন্ন এলাকায় এমন গুজব ছড়িয়ে পড়েছে যে, রাতেই ভূমিকম্প আঘাত হানতে পারে এ কারণে লোকজন আজান দিচ্ছে। আবার কেউ কেউ বলছেন, মহামারির সময় একযোগে আজান দিলে আল্লাহর রহমত বর্ষিত হয়। সেই সঙ্গে হিন্দু পল্লীতে শুরু হয়েছে উলুধ্বনি দেওয়ার কাজও।

ফেসবুক তথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কক্সবাজারের সেন্ট মার্টিনস দ্বীপ থেকে শুরু করে টেকনাফ, সাগরদ্বীপ কুতুবদিয়া, মহেশখালী এবং সীমান্ত উপজেলা নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সর্বত্র একই সময়ে মসজিদে মসজিদে আজানের ধ্বনি শোনা যাচ্ছে।

এদিকে মধ্যরাত ১২টার দিকে ভূমিকম্প আঘাত হানার গুজব নিয়ে অনেক গ্রামে এবং শহরের মহল্লার লোকজন ভয়ে ঘরের বাইরে বেরিয়ে পড়ে।

টেকনাফের হ্নীলা স্টেশন মসজিদের ইমাম মৌলানা জামাল উদ্দিন জানান-লোকজন পরষ্পর গুজবে কান দিয়েও অহেতুক এরকম বিশ্বাস জন্মিয়ে ফেলে। তদুপরি ফেসবুকে কেউ একটি স্ট্যাটাস দিলেই সেটা ভাইরাল হয়ে সর্বত্র হয়ে যায়।

কলাতলী মসজিদের পেশ ইমাম বলেন “দাজ্জালে ছেয়ে গেছে দেশ। ধর্ম নিয়ে গুজব আর টানা হ্যাঁচড়া তো ছিলই আজ আজানকে নিয়েও তারা গুজব ছড়াচ্ছে। সবচেয়ে দু:খের বিষয় ফেসবুকের মাধ্যমে যে কোন মিথ্যা তথ্য খুব সহজেই আপনি ছড়াতে পারেন। আপনি ছড়াবেন ১০০ জনের মধ্যে। না ছড়ালেই দোযখে যাবেন। আপনার ইমান থাকবে না। অত্যান্ত কষ্ট লাগে যারা লেখা পড়া জানে, শিক্ষিত মানুষগুলোই এই গুজব ছড়ায়। আল্লাহই ভাল জানেন তারা এই করে কি লাভ পায়?”

গতোরাতে এক যোগে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় মেসেজের মাধ্যমে গুজব ছড়ানো হয় যে রাতের মধ্যে ভূমিকম্প হবে এই ভূমিকম্প থেকে বাঁচতে হলে সমস্বরে আজান দিতে হবে।

ইসলামে বলা আছে শেষ যামানায় দাজ্জাল বিভিন্ন গুজব ছড়াবেন। অনেক সচেতন মানুষই প্রশ্ন করছেন আসলে দাজ্জাল কে বা কারা? সেটি বাংলাদেশের ফেসবুক দেখলেই বোঝা যায়। কতো সহজেই দেখুন ভূয়া নিউজ ছড়ানো যায় এই দেশে।

বাংলাদেশের নাম গুজবের দেশ নামকরণ করতে ফেসবুকে একদল লোক স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

আর কিছু সময় গেলে এই দেশে সত্য আর মিথ্যা নিউজ বুঝতেই সমস্যা হয়ে যাবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840