সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
মসজিদের ইমাম সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান নিয়ে পালালেন

মসজিদের ইমাম সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান নিয়ে পালালেন

ইমাম পালালেন প্রবাসীর স্ত্রী নিয়ে
ইমাম পালালেন প্রবাসীর স্ত্রী নিয়ে

মসজিদের ইমাম হাফেজ আব্দুল্লাহ্ আল নোমান প্রবাসীর স্ত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিপুল পরিমাণ নগদ অর্থ ও স্বর্নালঙ্কার সহ পালিয়েছেন। তার ওই প্রেমিকার নাম নুসরাত জাহান চাঁদনী।

মসজিদের এক ইমাম পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলার পত্তাশী ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের মসজিদে ইমামতি করতেন হাফেজ আব্দুল্লাহ্ আল নোমান। ২০১১ সালে রামচন্দ্রপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী মো. সেলিম শেখের সঙ্গে নুসরাত নামের মেয়েটির বিয়ে হয়।

বিয়ে করে স্বামী বিদেশে চলে যান। তার গর্ভে মেয়ে সন্তানের জন্ম নেয়। নুসরাত জাহান চাঁদনীর স্বামি বিদেশ থেকে মাঝখানে একবার দেশে আসেন। তখন তাদের কোল ঝুড়ে মেয়েটির পাশাপাশি আবার এক ছেলে শিশু চলে আসে। প্রবাসী সেলিম শেখ মেয়ে আর ছেলের জন্য আবার বিদেশে পাড়ি জমান।

এমতাবস্থায় চাঁদনী হাফেজ আবদুল্লাহ আল নোমানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়েন। গত বৃহস্পতিবার রামচন্দ্রপুর গ্রাম থেকে হাফেজ নোমান ও প্রবাসীর বধু চাঁদনীকে আর গ্রামে খোঁজে পাওয়া যায়নি।

ঘটনার পর নুসরাত জাহান চাঁদনীর বাবা বাহাদূর হাওলাদার ও সেলিমের বড় ভাই শহিদুল ইস’লাম ইন্দুরকানী থানায় পৃথক দুটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

চাঁদনীর বাবা জানান, পারিবারিক মতামতের মাধ্যমেই চাঁদনিকে সেলিমের সাথে আমরা বিয়ে দেই। আমাদের এই আয়োজনে ৮ বছর আগে চাঁদনি কোন আপত্তি করেনি। সে স্বামি ও সংসার নিয়ে বেশ সুখেই ছিল, কখনো কোন অভিযোগ করেনি। সেলিম ভাল চাকরি করে সৌদিতে। সৌদিতে এখন অনেকের অবস্থাই তো খারাপ কিন্তু সেলিম সবসময় ভালো ভাবেই কাজ করতে পেরেছে। আমার মেয়েটা এমন করলো কেন আমি বুঝতে পারতেছি না। আমার জ্ঞানে ধরে না।

নোমান পত্তাশী বাজার জামে মসজিদের ইমামতি করতেন। তাদের বাসায় মাসে মাত্র একবার খেতে আসতেন। এই সুবাদেই দুজনের পরিচয়। সেখান থেকেই হয়তো কিছু একটা হয়েছে।

এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায় সম্প্রতি চাঁদনীর বড় সন্তান মানে মেয়েটি পুকুরের পানিতে ডুবে মারা যায়। এমতাবস্থায় শান্তনা ও বিভিন্ন ধর্মীয় রীতি নীতি ফতুয়া দেয়ার সূত্র ধরে চাঁদনীর বাড়িতে ইমাম সাহেবের আনাগোনা একটু বেশিই দেখা যায়। কেউ কখনো ইমাম সাহেবকে খারাপ চোখে দেখেন নি। তিনি সমাজে সবার শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন।

এদিকে স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে ইমাম সাহেব সুযোগটাকে কাজে লাগান। তিনি নুসরাত জাহান চাঁদনীর সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। ছেলেকে সাথে নিয়েই ইমামের সঙ্গে রাতের আঁধারে পালান নুসরাত জাহান চাঁদনী। পাঁচদিন আগে স্বামী সেলিমকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন চাঁদনী।

খবর নিয়ে জানা যায় ইমাম হাফেজ আবদুল্লাহ আল নোমানের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ উপজেলার চিংড়াখালী নামক একটি গ্রামে।

ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় দুটি জিডি হয়েছে। যদিও কেউ এখনো কোন মামলা করেন নি তবুও উনারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন।

প্রবাসী সেলিম প্রবাসে থাকায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

সেলিমের ভাই জানান তার ভাইয়ের স্ত্রী এমন একটি ঘটনা করবে এটা কেউ কল্পনাও করতে পারেনি। তারা সবাই পৃথক ছিল। পারিবারিক কোন ঝামেলা ছিল না। সেলিম বিদেশে থেকে প্রচুর স্বর্নালঙ্কার করেছে। আর ব্যাংকে যাবতীয় টাকা সে নুসরাত জাহান চাঁদনীর একাউন্টেই পাঠিয়েছে। সারাজীবন তার ভাই বিদেশ করে আজ পথের ফকির হয়ে গেছে।

পালিয়ে যাবার পর নুসরাত তালাকনামা বাড়ির ঠিকানায় পাঠিয়েছে। তার স্বামি তো এখন বিদেশে আছেন। তাকে যদিও ফোনে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। সে ভেঙ্গে পরেছে। সারাজীবন সে কষ্ট করে যা অর্জন করেছিল সবই আজ বৃথা হয়ে গেলো।

স্ত্রী তার সকল নগদ অর্থ ও সম্পদ নিয়ে পালিয়েছে। এতে তার মানসিক অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে গেছে। কিছুদিন আগে তার মেয়েটি পানিতে পরে মারা গেছে। তার একমাত্র সন্তান এখন ছেলে। তাকেও নুসরাত জাহান চাঁদনী সাথে নিয়ে পালিয়েছে। বাচ্চাটিকে ফেরত আনা সহ তার খোয়া যাওয়া সম্পত্তির কি হবে?

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840