সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয়

মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয়

নরসিংদীতে এমপিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা
নরসিংদীতে এমপিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক: জনপ্রিয় সাবেক মেয়র লোকমান হোসেনের আত্মস্বীকৃত খুনি আশরাফুল কে আজ ১৫ ই আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে নরসিংদীর এমপি মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম হিরোর পাশে দেখা যায়।

এমপি মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম হিরোর আয়োজেনে আওয়ামীলীগের কোন অঙ্গসংগনের সহযোগিতা বা যোগদান চোখে পড়েনি। এমনকি তার আয়োজনের অনুষ্ঠানে তিনি ছিলেন প্রধান অতিথী এবং অনুষ্ঠানের কোন সভাপতিও ছিল না। যদিও দলীয় প্রোটোকল অনুযায়ী আজ জাতীয় শোক দিবসের নরসিংদী জেলা আওয়ামীলীগের আয়োজন সমূহে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির-ই সভাপতিত্ব করার কথা।

নরসিংদীর এমপি নজরুল ইসলাম হিরোই জেলা আওয়ামীলীগ নরসিংদীর সভাপতি অথচ তার আয়োজনে পাশে নেই অন্য কোন অঙ্গ বা সহযোগী সংগঠন।

নরসিংদীর অন্যতম জনপ্রিয় মেয়র ছিলেন প্রয়াতন লোকমান হোসেন। তার মৃত্যুর পর টপ অফ দি টকে পরিণত হয়েছিল ঘটনাটি। রাজনৈতিক অঙ্গনে গুঞ্জন চলছিল বহুদিন ধরে, লোকমানের খুনিদের সাথে হাত মিলিয়েছেন বর্তমান এমপি নজরুল ইসলাম হিরো।

জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে হিরোর ঠিক পেছনে মঞ্চেই দাঁড়িয়ে ছিলেন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিদাতা নিহত মেয়র লোকমান হোসেনের হত্যাকারী আশরাফুল সরকার।

নরসিংদী আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ বলছেন “ক্রমশ-ই নরসিংদীর এমপি নজরুল ইসলাম হিরো জনবিচ্ছিন্ন এবং কর্মী বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছেন।

এমপি হিরোর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিল আরো আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত নেতা কাইয়ুম। নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে নির্বাচন করার অপরাধে বিতর্কিত বহিস্কৃত কাইয়ুম আজকের অনুষ্ঠানে উত্তপ্ত বক্তব্য রাখেন, যা শোক দিবসের সাথে সাংঘর্ষিক।

উক্ত আয়োজনে খাবারের অপ্রতুলতার কারনে অনেক লোক দীর্ঘসময় অপেক্ষা করে চলে যায়।

অপরদিকে নরসিংদী জেলা শহর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে মিলাদ মাহফিল এবং গণভোজের আয়োজন করা হয় যেখানে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের স্বতস্ফুর্ত উপস্থিতি লক্ষনীয়। প্রায় ৫০০০ লোকের জন্য বর্তমান মেয়র কামরুলের উদ্যোগে গণভোজনের ব্যবস্থা করা হয়। সেখানে সকল শ্রেণির মানুষের জন্য অবাধে বিরিয়ানি খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, নরসিংদী জেলা আওয়ামীলীগের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল মতিন ভূঁইয়া। তিনি তার বক্তব্যর মাধ্যমে সুস্পষ্টভাবে এমপি হিরোকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন। উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি পৌর মেয়র কামরুজ্জামান কামরুল।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিল শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন বাচ্চু, তাছাড়া অঙ্গসংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দ, প্রতিটি ইউনিটের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন।

নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মতিন ভূঁইয়া বক্তব্যে নিন্দা জানিয়ে বলেন “সারা বাংলাদেশ শ্রেষ্ঠ মেয়র ছিল লোকমান, তার খুনিদের নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাতীয় শোক দিবস পালন করে যা নেক্কারজনক ঘটনা, তিনি নরসিংদীর মাটিতে সদরের এমপি।”

আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম হিরুকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে, তিনি আরো বলেন “লোকমানের খুনিদের যারা আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছে তাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার, নরসিংদীর মাটিতে এদের রাজনীতি চলবে না।”

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840