সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
রাসেল মাহমুদ মন পুতুল এর ৪ টি সেরা কবিতা

রাসেল মাহমুদ মন পুতুল এর ৪ টি সেরা কবিতা

রাসেল মাহমুদ মন পুতুল
রাসেল মাহমুদ মন পুতুল

রাসেল মাহমুদ
পেয়ালা পূর্ণ অসুখ

গোলাপী পেয়ালা পটে, কে তুমি নিঠুর?
রাঙাও জীবনের পথ!
পাথরের বুকে নেমেছে ঝরনার শোক
গ্লানির অল্মতায় প্রবোধ
প্রিয়ার প্রসুন তিলক তরে।

বুকের নাব্যপথে অচেনা নাবিক
ক্ষত রাতে ডাক দিয়ে যায় প্রণয়ি তারা
ক্ষমা ও ক্ষোভের অভিমানী শিশির
মেঘমালা ক্ষয়ে ক্ষয়ে পড়ে দু চোখের পলকে
তুমি নারী, লুকিয়ে ছিলে, আছো হৃদয় গভীরে
তবু কি দুরে? চিনেছ রুদ্ধপথ!
সোনালী সকাল চিঁরে সূর্য স্নানে অপেক্ষার রথ।

গন্ধের মাতমে আকাশ গেলাব
গোলাপি স্পর্শতা,শহরে শহরে প্রলাপ
রাঙা পায়ের স্রোতে।

এসেছিলে কবে? আজও কি রবে?
রয়েছে বরফের মত!
পথিক হৃদয়ে অযাচিত ক্ষত।

আর কত? আরও কত!
দেবে? দিয়েছ পেয়ালা পূর্ণ কষ্ট
কত দাম নেবে নিয়তীর প্রকোষ্ট?

হে ঈশ্বর, বুকের গভীরে তুমি, মসজিদ, মন্দির
তার ও গভীরে একখানা সোনালী কুটির
একখানা মুখশ্রির জীবন্ত সংসার
ছোঁয়া থেকে দূরে স্পর্শ প্রহার
নীল নগ্ন থাবায় কোমল বুকে সহে না আর।

রাসেল মাহমুদ
নিরব তরু

নিরব তরু আর রাত
নিস্তব্দ বুকের গভীরে আকাশ
তুমি, নারী তোমারই পথে ফ্রেম বন্ধী নিশ্বাস।

বুকের নাব্য পথে পাথর আর ঝিনুক
ক্ষয়ে ক্ষয়ে চলে বহতা নদী
কৃষকের রাঙা পার্বন ফসলে
কোথায় ত্রাতা, দ্যুতি?
কলঙ্ক নেবে কি? জ্যান্ত জ্যোৎস্নার মিছিল
নেবে কি নেবে কি ?বলো!
রক্ত হৃদয়, তুমি, তোমারই অক্ষরে কবিতা হয়।

দেবে কি? দেবে গো!
নিঠুর, রক্ত বর্ণ চোখ, পরিচয়
চিতার উদর
প্রজ্বলিত তপ্ত রেনু, কুহেলিকা বাসর
যৌবনা ভোর।

একখানা মেঘের আড়ালে
কত কি হারালে
প্রিয় ফুল হৃদয় বুলবুল ঘুমিয়ে পড়ে নিঃশব্দে|

পাখির আকাশে আর ব্যাস্ততার কোলাহলে
নৃত্যরত হৃদয়,
যন্রণাময় শোকানলে।

খুঁজে যায় মুখশ্রি রতন
দেবতার ফুলে,
একখানা প্রিয় নাম,প্রিয় সুর!

চিঁড়ে দেয় বুক লাইলীর আলোর মত
চিঁড়ে দেয় ভোর
সোনা রাঙা ফসল যত
আর কত? আরও কত!
নীরবতা তোর।

রাসেল মাহমুদ
গোমরা মুখ

সব সুখ গোমরা মুখে
দুঃখ কিনি তারই মুখ দেখে
রাঙা পা, চিবুক,ঠোঁটের কোনে অভিমানে বিনির্মাণ করি নিজেকে।

জানালায় আলো নেই, নেই রোদ্রের খেলা
অন্ধকারে হৃদয় নিঠুর খুজেছ কি সারাবেলা?
জীবন – মরন নিখিল।
সুরহীন বাদ্য গীতে ভেসে ওঠা মুখশ্রির মেলা
অভিমানে ভূলতে গিয়ে
তোমাকেই নির্মাণ করে চলা
বুক হতে বুকে তারও গভীরে বহতা নদীর ভাঙা- গড়া সারাবেলা।

নয়নে নয়ন কুশলে রাঙা গাঁথুনির স্বাধ
প্লবগ ছুটে চলে জীবন বিষাদ
শান্তির মিছিল তারই চিবুক, আহ্লাদ।

ঠোঁটের হাসিতে ঝরে চাঁপা- গোলাপ
তবু অভিমান চিঁড়ে আসেনা ভোরের আলো
ভুলতে গিয়ে গড়ি নিজের ভেতর
কৃষকের ফসলের মত
বুক হতে বুকে জমাট অযাচিত ক্ষত।

আলোহীন আঁধারির খেলা
ধূলোর মত
বাতাসে উড়ে যায় জীবন রাঙা পার্বন যত।

আর কত! আরও কত!
ঈশ্বর পোষা বুকে
তুমি নারী বুনবে ক্ষতের ফসল।

রাসেল মাহমুদ
মুসলিম
বুকে তোমার রক্ত ফসল
কারবালা ধায় পিছু
মুসলিম তুমি মুরতাদ নও, হয়না মাথা নিচু।

বর্মে বর্মে রক্ত পিশাচ
রাষ্ট্র তুমি কার দালাল?
রক্ত কড়াল ঝরছে নদী বুলেট, বোমা রুঢ ইহুদি
রাষ্ট্র তুমি, তোমার গদি
আর কত চাও কারবালা
রাসুল (সাঃ) এর অপমানে ও তুমি নিকৃষ্ট ফর্মূলা
রাষ্ট্র তুমি, মুসলিম কোথা কার রক্তে হলি খেলা!

রাষ্ট্র তুমি ফারাও, রুদ
বুকের চিতায় গৃবা জ্বালা
মুসলিম কৈ মুসলিম কৈ ?চলবে কত আইন তলা!

মুসলিম কি কাপুরুষ হয়?
উমার, বেলাল রুহানী যায়
মুসলিম তোমার পতাকা কৈ
মসজিদে মেলাদ কেন হৈ চৈ
মোল্লা কোথা, কোথায় তীর, বর্শা খাঁ খাঁ পুলিশ বীর!

হায় খোদা হায় কারবালা চিঁর
রাসূল নামেই গোনাহ ফিকির
কিসের কর কত জিকির
মুসলিম কোথা নয় নত শীর
রক্তে কসম রাষ্ট্র তুমি সীমার সমীর।

রক্ত ন্যাবা, বুকের কসম
মুসলিম ভুমি কেন অধম?
আদম জাতের মৃত্যু ভয়!মুসলিম সে অকুতো ভয়।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840