সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
রায়পুরের দোয়া মাহফিল নিয়ে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার ঝড়

রায়পুরের দোয়া মাহফিল নিয়ে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার ঝড়

রায়পুরের দোয়া
রায়পুরের দোয়া

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুসারে ৫০ জনের বেশি মানুষের জমায়েত নিষিদ্ধ। সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারও গণজমায়েত নিষিদ্ধ করেছে। এই নির্দেশনা অমান্য করে স্থানীয় প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার হায়দরগঞ্জে গত বুধবার সকালে বিপুলসংখ্যক মুসল্লির জমায়েত হয়েছে। তাঁরা আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে খতমে শেফা, দোয়া ও মোনাজাত করেন। স্থানীয়রা জানায়, মোনাজাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা অন্তত ৫০ হাজার মানুষ অংশ নেন। যা আয়োজন করা হয় ফেসবুকের মাধ্যমে।

এই বিপুল গণজমায়েতের বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশব্যাপী ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হয়। এবার বিশ্বব্যাপীও বিষয়টি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। তুমুলভাবে ইসলাম ধর্মের অনুসারীদের অবজ্ঞা করা হচ্ছে। ধর্মটাকেই এরা যেন হেলার বস্তু বানিয়ে ফেললো।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম সহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক-টুইটারেও বিষয়টি নিয়ে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় বইছে। তুমুলভাবে তোপের মুখে পড়েছেন এমন মোনাজাতের আহ্ববায়ক।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, বিপুল গণজমায়েতের ফলে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় ব্যাপক উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে। অথচ যে ধর্মীয় নেতা এই দোয়া মাহফিলের ডাক দিয়েছিলেন তিনি বলছেন এতে নাকি করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পাবে লোকে!

এমন হাস্যকর চিন্তাভাবনা কি করে আধুনিক যুগের এতোগুলো মানুষ বিশ্বাস করে এটা ভেবেই হাজার হাজার মানুষ বিভিন্ন স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

ফোবর্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে যে গণ দোয়ার অনুষ্ঠান করা হয়েছে তা পুরোপুরি নির্বোধের মতো একটি কাজ হয়েছে। কতোটা নির্বোধ হলে এমনটি করতে পারে তারা।


গ্লোবাল এনালাইটিকাতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে হাজার হাজার মানুষ এক গণ দোয়ার অনুষ্ঠানে জটলা পাকানোয় দেশটিতে করোনাভাইরাস আরো ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। সরকারের নিয়ন্ত্রণ না শুনে, কোন আইন না মেনে দেশটাকেই বিপদের মুখে ঠেলে দিয়েছে তারা।

চায়না ডেইলিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে হাজার হাজার মানুষ একজায়গায় জমায়েত হওয়ার কারণে ভাইরাসটি সেদেশে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। দেশটার সামনে চরম দুর্দিন অপেক্ষা করছে।

এছাড়া টুইটার ও ফেসবুকের মতো সামাজিক মিডিয়ায় হাজার হাজার মানুষ ওই জমায়েতের ছবি শেয়ার করে একে বোকার মতো কাজ বলে সমালোচনা করছেন। কি করে মানুষের বুদ্ধি এতো কম হতে পারে।

সোনজা ডেনোভস্কি নামের একজন লিখেছেন, এই গণ দোয়ার ঘটনায় দেশটিতে করোনাভাইরাস আরো ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা তৈরি হলো। দেশটা যে মূর্খ লোকে পূর্ণ এটাই তার প্রমান।

জর্ডান ও’নেইল নামের একজন লিখেছেন, এই ধরনের মাথামোটা এবং দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ করলে দোয়ায়ও কোনো কাজ হবে না। দেশটাতে হাজার হাজার লোক মারা যাবে, যার জন্য দায়ী এই ভন্ড মূর্খের দল।

আয়েশা আবরাও নামের একজন লিখেছেন, বাংলাদেশের গণদোয়ার অনুষ্ঠান বিশ্ব্যব্যাপী আতঙ্ক তৈরি করেছে। এই লোকগুলো নিজেরাও মরবে, অন্যদেরও মারবে।

টুইটারে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার মানুষ বিবিসির নিউজের লিঙ্ক এবং ওই জমায়েতের ছবি শেয়ার করে উদ্বেগ প্রকাশ এবং সমালোচনা করছেন। রায়পুরের দোয়া মাহফিলের ওই খবর আজ বিশ্ব সামাজিক গণমাধ্যমে ভাইরাল।

থানকুনি পাতার কাহিনীর পর এমন এমনি একটি ঘটনা সরকারের উপরি মহলকেও লজ্জ্বায় ফেলে দিয়েছেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840