সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
রিজার্ভ ডে না থাকায় ফাইনাল হলো না

রিজার্ভ ডে না থাকায় ফাইনাল হলো না

ফাইনাল ক্রিকেট
ত্রি-দেশীয় ক্রিকেট টুর্নাম্যান্ট এর ফাইনাল

বাংলাদেশ এর আয়োজনে ত্রি-দেশীয় সীমিত ওভারের ক্রিকেট সিরিজের ফাইনাল খেলায় একটি বল-ও গড়ায় নি মাঠে। সিরিজের ১ম পর্বের প্রথম ম্যাচটি ঢাকাতে অনুষ্ঠিত হবার সময় বৃষ্টি বিঘ্নিত কারনে আঠার ওভারে খেলাটি হয়। আজ ফাইনালে সেই ঢাকার মিরপুরের চিরচেনা স্টেডিয়ামে অপেক্ষা করছিল উপচে পরা দর্শক কিন্তু ভাগ্য তাদের সহায় হলো না।

টুর্নাম্যান্ট শুরুর আগে তিন দেশের অধিনায়ক হেমিলটন মাসাকাদজা, সাকিব আল হাসান এবং রশিদ খান ট্রফি উঁচিয়ে ধরেছিল। আজ ফাইনাল খেলায় মিরপুরে বাংলাদেশের প্রান সাকিব আল হাসান ও আফগান দলপতি রশিদ খান ট্রফি উঁচিয়ে ধরে। দুদলই চ্যাম্পিয়ন।

আইসিসির নীয়মনুযায়ী কোনি রিজার্ভ ডে না থাকায় ফাইনাল খেলার মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি ম্যাচে একটি বল-ও মাঠে গড়াতে পারেনি। ম্যাচ রেফারি ও আম্পায়ার গণ দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে ম্যাচটির জন্য। ঢাকাতে আজ দুপুর থেকেই বৃষ্টিপাত হচ্ছিল। কখনো গুড়ি গুড়ি আবার কখনো তীব্র বেগে ভারী বৃষ্টি। এই প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে সবার বিকেলেই বোঝা হয়ে গিয়েছিল অমিমাংসিত সিরিজ সামনে অপেক্ষা করছে। তাই হল অবশেষে।

ম্যান অফ দি সিরিজ নির্বাচিত হন আফগান সদ্য অভিষিক্ত রহমানুল্লাহ্ গুরবাজ। তার প্রথম সিরিজেই আলোর চ্ছটা তার উপর। সে বলেন “ আমি অত্যন্ত আনন্দিত ম্যান অফ দি সিরিজ পুরুস্কারটি অর্জন করে। আমি ধন্যবাদ জানাই আমাদের দলের প্রতিটি সদস্যকে যারা আমাকে সাপোর্ট করেছে এবং সহযোগিতা করেছে।সেই সব ভক্তদের যারা আমার জন্য দোয়া করেছে। এই প্রথম এতো বেশি সংখ্যক মানুষের সামনে আমি খেলেছি যা আমাকে মোটিভেটেড করেছে আর-ও ভাল খেলতে। সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা।”

রশিদ খান বলেন “আজকের দিনে উচ্ছসিত জনসমুদ্র দেখে আমি অভিভুত। অসাধারণ একটি ম্যাচ অপেক্ষা করেছিল। আমরাই হয়তো ট্রফি নিয়ে বাড়ি ফিরতাম। আজ রাতেই আমরা চলে যাবো। আমরা টুর্নাম্যান্ট শুরুর আগেই জানি আমরা টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটে অনেক ভাল একটি দল। আমরাই সেরা। টেষ্ট নিয়ে আমাদের স্বপ্ন ছিল, সেটি সফল হয়েছে। আশাকরি বোর্ড আমাদের প্রতি সন্তুষ্ট। আমরা ট্রেষ্টটিতে জয় উপহার দিতে পেরেছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ফাইনাল খেলা হলো না।”

বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেন “আজকের ম্যাচটি খেলতে না পারায় আমরা হতাশ। আমরা আমাদের স্বাভাবিক খেলা পুরো সিরিজটিতে খেলতে পারিনি। তারপর-ও টপার টিম হিসেবেই ফাইনালে এসেছিলাম। ম্যাচটি খেলতে না পারায় আমরা হতাশ। আমরা সুন্দর ক্রিকেট উপহার দিতে চেয়েছিলাম। আমি সিপিএল থেকে অনেক কিছু শিখেছি। আশাকরি আবার-ও সেখানে গিয়ে অনেক কিছু শিখতে পারব যা আমার ক্রিকেটের উন্নতিতে সহযোগিতা করবে। ইনডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের কারনে আমার অনেক ক্ষেত্রেই উন্নতি করতে সমর্থ হয়েছি।”

ধারাভাষ্যকারগণ হতাশার অভিব্যক্তি তুলে ধরেন। রিজার্ভ ডে না থাকার কারনে একটি চমৎকার আয়োজন ব্যর্থ হল। ফাইনাল না খেলায় কে সেরা সেটা নির্ধারিত হয় না অপরদিকে বাংলাদেশ টুর্নাম্যান্টে তাদের সহজাত খেলা শুরু থেকে খেলতে না পারলেও টপার টিম হিসেবেই ফাইনালে আসে। উভয় দল আর দলের সাপোর্টাররা তাদের কাঙ্খিত খেলাটি উপভোগ করার জন্যই মাঠে এসেছিল। যা আইসিসির একটি বাজে সিদ্ধান্তের কারনে সম্ভব হলো না।

বিশ্বকাপেও আইসিসি কোন রিজার্ভ ডে রাখেনি যার ফলে অনেকগুলো ম্যাচ পরিত্যাক্ত হয়। শ্রীলঙ্কা বদের স্বপ্ন নিয়ে বিশ্বকাপের বাংলাদেশ টিম ওই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের একটি বল-ও খেলতে পারেনি। অবশেষে বোর্ড কর্তাগণ শ্রীলঙ্কা সিরিজ শেষে বলেছেন বিশ্বকাপে তাদের পয়েন্ট হয়ত খোয়াতে হত।

বিশ্বকাপের পর থেকেই বাংলাদেশ দল রীতিমত এলোমেলো ক্রিকেট খেলছে। কেউ নেই ফর্মে। বিশ্বকাপে ফর্মের তুঙ্গে থাকা সাকিব অবশ্য শেষ ম্যাচে যেন নিজেকে খুঁজে পেয়েছে। তামিম ইকবাল ফর্মের সর্বোচ্চ আসনে অধীষ্ঠান হয়ে বিশ্বকাপে শ্রেষ্ঠ ওপেনার হিসেবে গিয়েছিলেন কিন্তু শূন্য হাতে ফিরেন তারপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারছে না। সর্বশেষ ত্রি-দেশীয় সিরিজ এবং আফগানদের সাথে খেলা একমাত্র টেষ্ট ম্যাচেও তাকে বিশ্রাম দেয়া হয়।

দর্শক থেকে সকল ক্রিকেটপ্রেমীর চাওয়া শীঘ্রই বাংলাদেশ টিম ফিরবে চিরচেনা পুরোনো সেই আক্রমনাত্মক ঢঙ্গে। যেখানে বিশ্বের যে কোন দেশকেই তারা ধরাশায়ী করতে পারে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840