লাইভে এসে শ্রীলেখার কান্নাকাটি

লাইভে এসে শ্রীলেখার কান্নাকাটি

ফেসবুক লাইভে এসে কান্নাকাটি করছেন
ফেসবুক লাইভে এসে কান্নাকাটি করছেন

শ্রীলেখার কান্নাকাটি

শ্রীলেখা ফেসবুক লাইভে এসে কান্নাকাটি করছেন। শুক্রবার দুপুরে আকস্মিক এই লাইভে হতবাক হয়ে যান নেটিজেনরা। যদিও শ্রীলেখার হুট হাট উলটাপালটা কর্মকাণ্ড করার বাতিক রয়েছে। তবে এবারেরটা যেন নেটিজেনরা হৃদয়াঙ্গম করতে পারছিলেন না। কুকুর নিয়ে ঝামেলা বেঁধে যায় প্রতিবেশির সঙ্গে। তাদের কথাবার্তায় মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন শ্রীলেখা। 

ভিডিওতে দেখা যায় শ্রীলেখার সঙ্গে কমপক্ষে ৮-১০ জন তর্ক করছেন। এ অভিনেত্রী এক কথা বললে অন্য পক্ষ থেকে তিন-চারজন একসঙ্গে কথা বলতে থাকেন।

উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় দীর্ঘ সময় ধরে চলে। কিন্তু দুই পক্ষকে শান্ত করার কেউ নেই। এমনকি সিকিউরিটি গার্ডও নীরব! এর কিছুক্ষণ পর দ্বিতীয়বার লাইভে আসেন শ্রীলেখা। এ সময় কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন এই অভিনেত্রী।

এই কমপ্লেক্সে ছেড়ে দেওয়ার কথা জানিয়ে শ্রীলেখা বলেন, ‘আমি কিছু দিন আগে বাবাকে হারিয়েছি। সবকিছু মিলিয়ে মানসিকভাবে ভালো নেই। মুখের ওপর অপ্রিয় সত্য বলে দিই। এ নিয়ে ইন্ডাস্ট্রির অনেককে চটিয়েছি।

আসলে আমার একার পক্ষে এই যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। আমি আমার রক্ত পানি করা টাকা দিয়ে এই ফ্লাটটি কিনেছি। কিন্তু এখানে আর থাকব না। এই কমপ্লেক্স ছেড়ে দেব।’

কেউ কুকুরকে খাবার না দিলেও নিজ উদ্যোগে রাস্তার কুকুরদের খাবারের ব্যবস্থা করেন শ্রীলেখা। কিন্তু শ্রীলেখার এসব কর্মকাণ্ড ভালোভাবে নেননি তার কমপ্লেক্সের অন্যরা।

শুধু তাই নয়, শ্রীলেখার প্রতিবেশীরা থানায় গিয়ে অভিযোগও করেন।

বাবাকে হারিয়েছেন সেপ্টেম্বর মাসেই। এখনও যেন বাবার চলে যাওয়াটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না শ্রীলেখা মিত্র। তাঁর ফেসবুক পেজে চোখ বুলোলেই বোঝা যাবে সেকথা।

বাবার ছবি থেকে কথা, নানান স্মৃতি উঠে এসেছে সেখানে। না ফেরার দেশে পাড়ি দিলেও বাবাকে যেন কিছুতেই কাছছাড়া করতে চাইছেন না এই টলি-অভিনেত্রী । এখনও বাবার সঙ্গে নিজের কথা চালিয়ে যান। রোজ, প্রতিদিন। রোজ বাবার ফোনে ভয়েস রেকর্ড করে পাঠান। ফেসবুকে করা সেই পোস্টে নিজেই একথা লিখেছেন শ্রীলেখা।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিতে ইউরোপ গিয়েছিলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

সেই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে তাঁর অভিনীত ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন ক্যালকাটা’ ছবির স্ক্রিনিং হওয়ার সুবাদে সেখানে হাজির হয়েছিলেন তিনি। প্রায় একমাস ইউরোপে ছিলেন শ্রীলেখা। সেই বিদেশ সফর থেকে ফিরেই বাবাকে হারিয়ে শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েছিলেন শ্রীলেখা।

তারপর আজকের এই ঘটনা। 

শ্রীলেখা মিত্র (ইংরেজি: Sreelekha Mitra; জন্ম: ৩০ আগস্ট ১৯৭১) একজন ভারতীয় বাঙালি চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। অভিনয় প্রতিভার স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি পেয়েছেন বিএফজেএ সম্মান।জন্ম: শ্রীলেখা মিত্র; ৩০ আগস্ট ১৯৭১ (বয়স ৫০); কলকা…উল্লেখযোগ্য কর্ম: কাঁটাতাঁর; আশ্চর্য প্রদীপ; চৌ…পেশা: চলচ্চিত্র অভিনেত্রী জাতীয়তা: ভারতীয়

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840