সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
সফল হতে চাইলে আত্মবিশ্বাসী হোন: নুর আহমদ সিদ্দিকী

সফল হতে চাইলে আত্মবিশ্বাসী হোন: নুর আহমদ সিদ্দিকী

সফলতা-আত্মবিশ্বাস
সফলতা-আত্মবিশ্বাস

কে না চাই জীবনে সফল হতে?পৃথিবীতে সবাই সফল হতে চাই কিন্তু সবাই সফল হতে পারেনা।সফলতার প্রথম মন্ত্র হল নিজের প্রতি নিজের বিশ্বাস।যাকে জ্ঞানীরা আত্মবিশ্বাস বলে।

আত্মসমালোচনা ভাল, আত্মবিশ্বাস ভাল। কিন্তু আত্মকেন্দ্রীকতা ও আত্মগৌরব ভাল নয়। এই নশ্বর পৃথিবীতে যারা সফল হয়েছে তাদের ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে তারা প্রত্যেকেই ছিলেন আত্মবিশ্বাসী।

আত্মশক্তির বলেই তারা আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেন। কোন কাজ শুরুর আগেই যদি ধারণা করে বসেন আপনি পারবেন না তখন ৪০% কাজ শুরুর আগে ব্যর্থ হয়েছন।সেক্ষেত্রে আপনি অবশ্যই ব্যর্থই হবেন।

বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন একজন আত্মবিশ্বাসী নেতা। যার আত্মবিশ্বাসের ফলে এদেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছিল। তিনি ১৯৭১ সালে রেসকোর্স ময়দানে ভাষণদান কালে ইনশাআল্লাহ বলে যেভাবে আল্লাহর উপর বিশ্বাস ও নিজের প্রতি বিশ্বাস রেখেছিল পরবর্তীতে সেই বিশ্বাসই বাঙ্গালী জাতিকে পাকিস্তান নামক কারাগার থেকে মুক্তি দেয়।

তাঁর প্রতিটি কথায় ছিল প্রচন্ড আত্মবিশ্বাস। যে নিজেকেই বিশ্বাস করতে শিখেনি সে তাঁর প্রভূকে কিভাবে বিশ্বাস করবে? নিজের প্রতি বিশ্বাস থাকলে সফল হতে সময় লাগেনা।

আপনি যে কাজই করেন না কেন তাতে থাকতে হবে আত্মবিশ্বাস।আমাকে পারতেই হবে, ইনশাআল্লাহ আমি পারব, অসম্ভব বলতে কিছুই নেই। এটার নামই আত্মবিশ্বাস।

কুকুরের কাছে মুরগি বড় অসহায় কিন্তু কোন মুরগি যদি কখনো ক্ষেপে যায় তাহলে কুকুর পালাতে বাধ্য হয়। এমন দৃশ্য আমি বহুবার দেখেছি। আপনি আল্লাহর কাছে দোয়া করবেন তাহলে এই ভেবে করুন যে আল্লাহ আমার দোয়া কবুল করবেন। হয়তো দোয়া কবুল হবে। প্রথমেই যদি ধারণা করেন আমার দোয়া কবুল হবেনা তাহলে ধরো নিন দোয়া কবুল হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

এক ব্যক্তি কঠিন রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু শয্যায় শায়িত। বাঁচার আশা এক প্রকার ছেড়ে দিয়েছে। তখন খবর আসে পাশের গ্রামে একজন বুজুর্গ আছে যিনি পানি পড়িয়ে দিলে কঠিন রোগও ভাল হয়ে যায়। সেই বিশ্বাসে তার দুই নাতনিকে পানি পড়িয়ে আনতে পাঠায়। হাটতে হাটতে ক্লান্ত হয়ে পড়ে ঐ দুই নাতনি। তখন দুষ্টু নাতনি গুলো ঐ বুজুর্গের কাছে না গিয়ে রাস্তার দ্বারের পুকুর থেকে এক বোতল পানি নিয়ে আসে। তা পান করে ঐ মৃত্যু শয্যায় শায়িত ব্যক্তি সুস্থ হয়ে যান। এটার নামই বিশ্বাস।

আপনি সালাতুল হাজত পড়ে কিছু চাইলে পাবেন বলে আশা রাখেন তাহলে পেয়ে যাবেন যদি সেই পরিমাণ আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস থাকে। বিশ্বাসের উপর চলছে পুরো পৃথিবী। তাই অন্যকে বিশ্বাসের পূর্বে নিজেকে বিশ্বাস করতে শিখুন তাহলে জীবনে সফল হবেন।

আপনি মঞ্চে বক্তব্য দিবেন তাহলে নিজেকে সেরা ভাবুন। যারা আপনার সামনে উপস্থিত তারা আপনার ছাত্র সেই বিশ্বাসে বক্তব্য দিন। তাহলে সেরা বক্তব্য দিতে পারবেন। যারা শ্রুতা আছে তাদের চেয়ে আপনি বেশি জানেন, বুঝেন সেই বিশ্বাস রাখুন তাহলে আপনার বক্তব্য হবে কালজয়ী।

মঞ্চে উঠেই যদি ভাবেন শ্রুতারা আমার চেয়ে জ্ঞানী তাহলে বক্তব্য এলোমেলো হবেই। ক্ষণিকের জন্য বড় ভাবার মানে অহংকার করতে বলছিনা।

আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে ছোট বেলায় প্রশ্ন করেছিল তুমি বড় হলে কি হবে? সে বলেছিল প্রেসিডেন্ট হবো। আত্মবিশ্বাসের বলে তিনি হয়েছিলেনও।

আত্মবিশ্বাস অর্জনই শিক্ষার মূল উদ্দেশ্যে বলে বিভিন্ন মনীষি অভিমত দিয়েছেন।যারা চাঁদের দেশে গিয়েছেন,এভারেস্ট জয় করেছেন, বড় বড় ব্যবসায়ি হয়ে ডাক নাম খ্যাতি অর্জন করেছেন তাদের ইতিহাস যাচাই করলেই বুঝতে পারবেন তারা কতটা আত্মবিশ্বাসি ছিলেন।

আপনি নিজেকে ক্ষুদ্র ভাবতে যাবেন না তাহলে সফল হওয়া সম্ভব হবেনা। ছোট ছোট বীজ কে ক্ষুদ্র না ভেবে বীজের সম্ভাবনার কথা ভাবুন। একটি ছোট কাঁঠালের বীজ থেকে গাছ হয়,ফুল হয়, ফল হয় হাজারো।

একটি বীজ হাজার হাজার বীজের জন্ম দেয়।কবির ভাষায় বলতে হয়-

ছোট ছোট বালুকণা বিন্দু বিন্দু জল

গড়ে তুলে মহাদেশ সাগর অতল।

ছোট ছোট বালুকণা দ্বারা একদিন মহাদেশ গঠিত হয়। ঠিক তেমনি বিন্দু বিন্দু জলরাশি দ্বারা একটি মহাসাগরের সৃষ্টি হয়। শীতকালে খেজুর গাছে এক ফোটা করে করো রস পড়তে পড়তে একটি কলসি ভরতি হয়ে যায়। তাই নিজেকে ছোট না ভেবে বীজ এর ন্যায় সম্ভাবনার কথা চিন্তা করুন। জীবনে সফল হতে হলে আত্মবিশ্বাসেরর বিকল্প নেই।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840