সংবাদ শিরোনাম:
দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকার সেরা অফিসার ইনচার্জ ফারুক হোসেন ‘ভোট জালিয়াতি’ তদন্তের নির্দেশ চট্টগ্রামে গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ধর্ষকদের বাঁচাতে কাউন্সিলরপ্রার্থী বেলালের দৌড়ঝাঁপ নারী নির্যাতন মামলায় বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের বিবাহিত সভাপতি মাহবুব হোসেন কারাগারে দুই নবজাতকের লাশ নিয়ে হাইকোর্টে বাবা কনস্টেবলকে মারধর, শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী কারাগারে অবক্ষয় থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করতে চলচ্চিত্রের ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে- তথ্যমন্ত্রী পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ ৯ দিনে করোনা জয়ী তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল এন্ড কলেজ, শেরপুর এর যাত্রা শুরু

সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল এন্ড কলেজ, শেরপুর এর যাত্রা শুরু

সৃষ্টি
সৃষ্টি

ড. শরিফুল ইসলাম রিপন কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত টাঙ্গাইলের সৃষ্টি শিক্ষা পরিবার ১৯৯৩ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে যার আভা দেশ ছেড়ে বিদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। ২০২০ সালের ভিশন হিসেবে তারা ১৮ তম ক্যাম্পাসের কার্যক্রম শুরু করেছেন।

শেরপুরের চকপাঠক এলাকায় আধুনিক ক্যাম্পাসে সর্বাধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত শিক্ষা সেবার ব্রত নিয়ে সৃষ্টি শিক্ষা পরিবার ও সৃষ্টি ফাউন্ডেশনের আঠারতম ব্রাঞ্চ হিসেবে সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল এন্ড কলেজ, শেরপুর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

প্রথম বছরের ভর্তি কার্যক্রম ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। প্লে গ্রুপ থেকে নবম শ্রেণিতে স্কুল শাখায় আবাসিক/অনাবাসিক শিক্ষার্থীর ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ফরম বিতরণ শুরু হয়েছে। আগামী বছরের শুরুতেই প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু হবে।

এক ঝাঁক তরূণ, বলিষ্ঠ, মেধাবী ও কর্মবীর শিক্ষকদের সৃষ্টির প্রতিষ্ঠিত শাখা সমূহ থেকে বাছাই করা হয়েছে। এছাড়াও শেরপুর থেকে দক্ষ, বলিষ্ঠ মেধাবী শিক্ষক-শিক্ষিকার সমন্বয়ে গড়ে তোলা হয়েছে সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল এন্ড কলেজ, শেরপুর। শিক্ষার্থী বান্ধব এই তরূণ শিক্ষকদের নের্তৃত্বেই পরিচালিত হবে শেরপুরের স্থায়ী ক্যাম্পাসটি।

সৃষ্টির সকল প্রতিষ্ঠানে একযোগে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ফরম বিতরণ শুরু করেছে। সৃষ্টি তার নব সৃষ্টির দৃঢ় প্রত্যয়ে এগিয়ে যাচ্ছে অদম্য লক্ষ্যে দুর্বার গতিতে।

দায়িত্বপ্রাপ্তদের বিশ্বাস খুব অল্প সময়েই তাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব সুন্দরভাবে পালনের মাধ্যমে ময়মনসিংহ বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্র্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলতে সমর্থ হবেন।

আত্মবিশ্বাসী শিক্ষকদের দাবী সৃষ্টির সম্মানীত চেয়ারম্যান এন্ড এমডি শরিফুল ইসলাম রিপন এবং ডিজি মাহবুবুল ইসলাম মিরন এর সুষ্পষ্ট দিক নির্দেশনায় পরিচালিত সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল এন্ড কলেজ, শেরপুরে সাড়া জাগানো একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে খুব শীঘ্রই পরিচিতি পাবে। তারা প্রতিষ্ঠানের প্রতি অনুগত থেকে আগামী দিনের কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে শেরপুরে শিক্ষাসেবা নিশ্চিত করতে চান।

কঠোর পরিশ্রমি তরূণ ও সকলের প্রিয় শিক্ষকদের নতুন শাখায় দায়িত্ব পাওয়ায় উচ্ছসিত হয়ে তাদের সাদরে গ্রহণ করেন শেরপুরের সৃষ্টির প্রাক্তন শিক্ষাথীরা।

সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের নতুন ক্যাম্পাসটির বিশেষত্ব হলো-

১. সিসি ক্যামেরাযুক্ত প্রতিষ্ঠান

২. সকল বিষয়ের মাল্টিমিডিয়া ক্লাস ব্যবস্থা

৩. সর্বাধিক ক্লাস টেস্ট

৪. ক্লাসে অনুপস্থিত থাকলে সাথে সাথে অভিভাবককে ফোনে জানানো

৫. বাচ্চাদের জন্য কিডস্ জোনের ব্যবস্থা

৬. খেলাধুলার মাঠ

৭. সুপরিসর নিজস্ব ক্যাম্পাস

৮. জেনারেটরের ব্যবস্থা

৯. ধর্মীয় শিক্ষার ব্যবস্থা

১০. অত্যাধুনিক শিক্ষা ও উন্নত চরিত্র গঠনের নিশ্চয়তাদানে কর্তৃপক্ষ বদ্ধপরিকর।

সৃষ্টি শিক্ষাপরিবার ১৯৯৩ সালে ড. শরিফুল ইসলাম রিপনের হাত ধরে টাঙ্গাইল জেলা সদরে যাত্রা শুরু করে। সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের মাদার প্রতিষ্ঠান সৃষ্টি একাডেমি (কোচিং) শুরুতেই টাঙ্গাইলে প্রথম বোর্ড স্ট্যান্ড ফলাফল অর্জন করতে সক্ষম হয়।

যার ফলশ্রুতিতে সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের পালক হিসেবে একে একে ঢাকা, রাজশাহী, গাজিপুর, আশুলিয়াতে শাখা ছড়িয়ে পরে। টাঙ্গাইল সদরের সৃষ্টি একাডেমিক স্কুল সৃষ্টির পালকের এক অনন্য সংযোজন। সৃষ্টি একাডেমিক স্কুল জাতীয় মেধা তালিকায় দ্বিতীয় স্থান অর্জন করতে সক্ষম হয়।

সৃষ্টি শিক্ষা পরিবার শিক্ষা নিয়ে ব্যবসায় নয়, শিক্ষা সেবা দিতে বদ্ধ পরিকর। সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে “শিক্ষা, জ্ঞান ও প্রযুক্তিতে দক্ষ নৈতিক মূল্যবোধ, জনগণের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ও দায়বদ্ধ এবং দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ, সদিচ্ছা প্রণোদিত নতুন প্রজন্ম গড়ে তোলা।”

ড. শরিফুল ইসলাম রিপন ছাত্রজীবনে ছিলেন ‍তুখোর মেধাবী। তিনি বিশ্বের ধনি ও দাতা ব্যক্তিদের সংগঠন লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের একজন অন্যতম দাতা সংগঠক। তিনি উক্ত ক্লাবের বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পদে আসীন।

ড. শরিফুল ইসলাম রিপন অত্যন্ত মিষ্টভাষী, সজ্জন এবং সুনাগরিক। তিনি টাঙ্গাইল জেলার সর্বোচ্চ আয়কর দাতা হিসেবে একাধিক বার সম্মাননা প্রাপ্ত হয়েছেন।


একজন অরাজনৈতিক ব্যক্তি হিসেবে তিনি টাঙ্গাইলবাসীর বিপদে আপদে সবসময় দানবীরের ভূমিকায় অগ্রগামী। দেশের যে কোন প্রাকৃতিক বিপর্যয় সহ সরকারের নির্ধারিত বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠানে তার অবদান অনস্বীকার্য।


টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক কর্তৃক আয়োজিত স্বাধীনতা দিবস ও বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের আয়োজনের ব্যয়ভার তিনি তার প্রতিষ্ঠান থেকে বহন করেন।


তিনি কোয়ানটিটি নয় কোয়ালিটিতে বিশ্বাস করেন। তার প্রতিষ্ঠিত বিদ্যাপীঠ সমূহে প্রতি বছর হাজার হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। অব্যবসায়ীক চিন্তা সম্পন্ন এই গুণি ব্যক্তি হাজারো সুযোগ থাকতেও আসন সংখ্যা বৃদ্ধি না করে শিক্ষার মান নিশ্চিত করার লক্ষে নিবেদিত হয়ে সদা কাজ করে যাচ্ছেন।


৬৪ জেলার অসংখ্য শিক্ষার্থী সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের ১৭ টি ক্যম্পাসের মাধ্যমে ডিজিটাল শিক্ষাপদ্ধতিতে শিক্ষা গ্রহণ করছে। লক্ষ লক্ষ শিক্ষার্থী দেশ-বিদেশে হাজারো পেশায় নিজেদের নিয়োজিত রেখেছেন। সৃষ্টির আভা ক্রমশ আরো গাঢ় থেকে গাঢ়তর হচ্ছে।

সৃষ্টি সাফল্যর ২৮ তম বর্ষে পদার্পণ করার প্রারম্ভেই শেরপুর শাখায় তাদের কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা – শিক্ষক সকলেই আশাবাদি সর্বোচ্চ শিক্ষা মান নিশ্চিত করনে এই শাখাটি উপুর্যপরী ভূমিকা রাখবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840