সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে একইসাথে দুই করোনা যোদ্ধার জন্মদিন উদযাপন এমপি মমতা হেনা লাভলীর টাঙ্গাইলে বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নতুন কমিটি এমপি হিরোর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর অপচেষ্টার অভিযোগ টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ কর্তৃক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন মানিক শিকদারের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে জাতীয় শোক দিবস পালন টাঙ্গাইলের পৌর মেয়র জামিলুর রহমানে মিরনের ব্যবস্থাপনায় টাঙ্গাইলে শোক দিবস পালন প্রবাসে থেকেও থেমে নেই টাঙ্গাইলের মুজাহিদুল ইসলাম শিপন মেয়র লোকমানের আত্মস্বীকৃত খুনি এমপি সাহেবের প্রোগ্রামে সক্রিয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজেই প্রধান অতিথী, সভাপতিত্ব করবেন কে?
১২১ বছর বয়সেও মিলেনি বয়স্ক ভাতা

১২১ বছর বয়সেও মিলেনি বয়স্ক ভাতা

হাতেম আলী
doinik71.com

একাত্তর প্রতিনিধি : টাঙ্গাইল জেলা নিবাসী হাতেম আলী বয়সের ভারে নুয়ে পড়েছেন। পাথরাইলের স্থানীয়দের ধারণা ইউনিয়নের সর্বোচ্চ বয়স্ক ব্যক্তি তিনি। ওই বৃদ্ধের ভাষ্যমতে দাবি তাঁর বয়স ১২১ বছর চলছে।

লাঠিতে ভর দিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাঁটেন। শরীরে আগের মতো শক্তি নেই। কাজ করার মতো বল পান না তিনি। বাড়ি থেকে মসজিদ। মসজিদ থেকে বাড়ি। এই তার দৈনিককার রূটিন। তার ভালো লাগা বলতে বাড়ির সামনে নাতি-নাতনিদের সঙ্গ দেওয়া/পুরোনো দিনের গল্প বলা।জীবন্ত এক ইতিহাস। জীবন্ত এক জ্ঞানাধার, তথ্য সমৃদ্ধ বিশাল একটা বই যেন তিনি। বয়সটা তাকে পরনির্ভরশীলতায় পৌঁছে দিয়েছে।

হাতেম আলী টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার পাথরাইল ইউনিয়নের চিনাখোলা গ্রামের মৃত নছের মন্ডল ও মৃত ময়রী বেগমের সন্তান। সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক বয়স্ক ভাতা পেতে সর্বনিন্ম ৬৫ বছর বয়সসীমা ধরা হলেও অজ্ঞাত কারণে দ্বিগুন বয়সেও বয়স্ক ভাতা পাচ্ছেন না ওই বৃদ্ধ।

তার ঘরেও রয়েছে ৬ মেয়ে ও ৫ ছেলে। এ বয়সেও তিনি মসজিদে নামাজ আদায় করেন ও আজান দেন। বৃদ্ধ বয়সে তার আক্ষেপ এখনও তিনি বয়স্ক ভাতা পাননি। প্রথমে দীর্ঘদিন তিনি চৌকিদারের (গ্রাম পুলিশ) পেছনে ঘুরেছেন ভাতার জন্য। জানতে পারেন চৌকিদারের এ দায়িত্ব না। পরে পাথরাইল ইউনিয়নের স্থানীয় ইউপি সদস্য (মেম্বার), চেয়ারম্যানের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কোন লাভ হয়নি। তার প্রশ্ন “আর কত বয়স হলে আমি বয়স্ক ভাতা পাব?”

জাতীয় পরিচয় পত্রে তার জন্ম সাল (১৯১৩) অনুযায়ী তার বর্তমান বয়স ১০৬ বছর। স্থানীয় শত বছরের একাধিক বৃদ্ধ জানিয়েছেন, তার বয়স আরও অনেক বেশি হবে। তবে হাতেম আলীর দাবি তাঁর বয়স ১২১ বছর। এলাকার এই বয়োজ্যৈষ্ঠ হাতেম আলী বয়স্ক ভাতা না পাওয়ায় সমালোচনায় পড়েছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। কারও কোন ভ্রক্ষেপ নেই এই বিষয়ে।

বয়স্ক ভাতা র্কমসূচি বাস্তবায়ন নীতমিালায় উল্লেখ রয়েছে, (১) সংশ্লিষ্ট এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে । (২) জন্ম নিবন্ধন/জাতীয় পরচিতি নম্বর থাকতে হবে । (৩) বয়স পুরুষরে ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৬৫ বছর এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৬২ বছর হতে হবে। (৪) প্রার্থীর বার্ষিক গড় আয় ১০,০০০ (দশ হাজার) টাকার নীচে হতে হবে । (৫) বাছাই কমিটি দ্বারা নির্বাচিত হতে হবে।

এছাড়া ভাতা প্রাপ্তরি অযোগ্যতার ক্ষেত্রে (১) সরকারি কর্মচারী পেনশনভোগী হলে । (২) দুঃস্থ মহিলা হিসেবে ভিজিডি কার্ডধারী হলে । (৩) অন্য কোনোভাবে নিয়মিত সরকারি অনুদান/ভাতা প্রাপ্ত হলে । (৪) কোনো বেসরকারি সংস্থা/সমাজকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান হতে নিয়মিতভাবে আর্থিক অনুদান/ভাতা প্রাপ্ত হলে।

ভাতা প্রাপ্তির সবগুলো যোগ্যতা থাকার পরও কেন বয়স্ক ভাতা পাচ্ছেন না এমন প্রশ্ন হাতেম আলীসহ তার স্বজনদের এবং এলাকার সকলের।

হাতেম আলী জানান, আমি কয়েকবার স্থানীয় ইউপি সদস্যের কাছে বয়স্ক ভাতার হন্য অনুরোধ করেছি। সাবেক ইউপি সদস্যের কাছেও অনুরোধ করেছি। সবাই এড়িয়ে গেছেন। কেউ গুরুত্ব দেন নাই। নির্বাচনের আগে প্রার্থীরা তাকে কার্ড দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও নির্বাচনের পর আর কোন খোঁজ নেননি নির্বাচিত প্রতিনিধিরা। বয়স্ক ভাতা নাগরিক অধিকার। শেষ বয়সে তিনি সেই নাগরিক অধিকার পেতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মীর আনিছুর রহমান জানান, হাতেম আলীর জাতীয় পরিচয় পত্রে একটু সমস্যা ছিল। এজন্য তাঁর কার্ড হয়নি। তবে উপজেলা সমাজ সেবা অফিসারের সাথে কথা বলে দ্রুত বয়স্ক ভাতার কার্ডের ব্যবস্থার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

পাথরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হানিফুজ্জামান লিটন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন ‘সম্প্রতি একটি তালিকা অনুমোদন হয়েছে। আগে জানলে এই তালিকায় উনার নাম অন্তর্ভুক্ত করা যেত। আগামী জুন মাসে নতুন তালিকা হবে। তখন অবশ্যই হাতেম আলীর নাম বয়স্ক ভাতার আওতায় আনা হবে।”

প্রাক্তন চেয়ারম্যান মো: হেলাল উদ্দিন বলেন এটা অনেক বড় একটা ভুল। আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন কেউ আমার নজরে বিষয়টা আনেনি। তবে আমার নজরে বিষয়টা এলে আমি অবশ্যই আমার সময়ে তাঁর জন্য বয়স্ক ভাতার ব্যবস্থা করতাম। এখন যারা দায়িত্বর আছেন তারা অবশ্যই ব্যবস্থা করবেন।

দেলদুয়ার উপজেলায় কর্মরত সমাজ সেবা অফিসার মোবারক হোসেন বলেন, এখনও এরকম বয়স্ক লোক বয়স্ক ভাতার আওতায় আসেনি বিষয়টি আমার জানা ছিলনা। আমরা তো প্রত্যেক গ্রামে গ্রামে গিয়ে সব খবর নিতে পারি না। জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় এটা সম্ভব হয়। বিষয়টা আমাদের জানা ছিল না।

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে হাতেম আলীর বয়স্ক ভাতার কার্ড এর ব্যবস্থা করে পৌছে দেয়ার আশ্বাস দেন সমাজ সেবার এই উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840